Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড সেজন্য আমি সিদ্ধান্ত বদলেছি

সেজন্য আমি সিদ্ধান্ত বদলেছি

SHARE
Golam-Forida-Chonda

টেলিভিশনের জনপ্রিয় মুখ গোলাম ফরিদা ছন্দা। দীর্ঘ অভিনয় জীবনে অসংখ্য নাটক, টেলিছবিতে কাজ করলেও তাকে দেখা যায় নাই চলচ্চিত্রে। তবে গেল বছরের শেষে মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ইমপ্রেস টেলিফিল্মের চলচ্চিত্র অপির্তা। কথা হলো ছন্দার সঙ্গে-
আনন্দ আলো: প্রথম চলচ্চিত্রে…
ছন্দা: গত ২১ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছে আমার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘অপির্তা’। ছবিটি পরিচালনা করেছেন শাহরিয়ার নাজিম জয়। আমার প্রথম নাটকের হিরো ছিল জয়। প্রথম ছবির পরিচালকও জয়। সে হিসেবে একসঙ্গে দুজনের পথচলা। ছবিটি যারা দেখেছেন তারা ভালো বলেছেন। অনেকেই আমার চরিত্রের প্রশংসা করেছেন। বেশ ভালো সাড়া পেয়েছি। যদিও ছবিটি একেবারেই হুট করে নির্বাচনের আগে মুক্তি দেয়া হয়েছিল- এটার জন্য আমার মনটা খুব খারাপ। কারন ঐ সময়ে দেশের সকল মানুষের মনোযোগ নির্বাচনকে ঘিরেই ছিল।
আনন্দ আলো: ছবিতে আপনার চরিত্রটি কেমন?
ছন্দা: আমি নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছি। অপির্তা নামের একটি মেয়ের জীবন যুদ্ধের চিত্র ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি আমি। একজন নিম্নমধ্যবিত্ত মেয়ের চরিত্রে দেখা যায় আমাকে। আমি সিঙ্গেল মাদার। একা একা বাচ্চাকে নিয়ে কিভাবে সমাজে সব প্রতিক‚লতা মোকাবেলা করে জীবন যাপন করেছি সেটা দেখানো হয়। এই জীবনযুদ্ধে আমি হেরে যাই, নাকি জয়ী হই সেটা দেখার জন্য ছবিটি দেখতে হবে।
আনন্দ আলো: এর আগে ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন?
ছন্দা: বাণিজ্যিক ছবির অনেক প্রস্তাব পেয়েছি। অনেকে অভিনয় করার অনুরোধ করেছেন। কিন্তু তখন আমার সিনেমায় অভিনয় করার তেমন ইচ্ছা ছিল না। তাছাড়া তখন দেশের সিনেমার অবস্থাও ভালো ছিল না। এখন দেখছি অনেক নিমার্তা ভালো ভালো ছবি নির্মাণ করছেন। সেজন্য আমি সিদ্ধান্ত বদলেছি। তাছাড়া ‘অপির্তা’ ছবিটির গল্পটাও ভালো। সব মিলিয়ে তাই এতে অভিনয় করতে রাজি হয়েছিলাম।
আনন্দ আলো: নাটকে অভিনয়ের কী খবর?
ছন্দা: আমি খুব কম নাটকে কাজ করি। অভিনয়ের পাশাপাশি নিজের ব্যক্তিগত কাজও থাকে। পরিবারকেও সময় দিতে হয়। কিছুদিন আগে দার্জিলিং-শিলং এ ৬টা নাটকের শুটিং করে এসেছি। সামনে আরো কয়েকটি নাটকে অভিনয়ের কথা রয়েছে। এছাড়াও এনটিভি, আরটিভি সহ বেশকিছু চ্যানেলে আমার অভিনীত ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। সেগুলোতে নিয়মিত অভিনয় করছি।