SHARE
City-Bank-AA

এ যেনো সাহিত্য জগতের সকল নক্ষত্রের এক মিলনমেলা! দেশসেরা ও গুণী সাহিত্যিকদের আনন্দমুখর উপস্থিতিতে আলোকময় হয়ে ওঠে পুরো অনুষ্ঠান। হওয়ারই কথা। কারণ এটি ছিল দেশের আলোচিত ও প্রশংসিত সাহিত্য পুরস্কার ‘সিটি ব্যাংক আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার’ প্রদান অনুষ্ঠান। হ্যাঁ, পাঠক চ্যানেল আইয়ের ছাদ বারান্দায় অনুষ্ঠিত এই আয়োজনে প্রতিবছরের মতো এবারও ছিল নানান চমক। এ বছর দেশের ১২জন প্রবীণ ও নবীন কবি সাহিত্যিকদেরকে এ পুরস্কার প্রদান হয়।
গত ১৪ বছর ধরে এই পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। প্রতিবার অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশিত বই থেকে জুরি বোর্ডের সদস্যরা শ্রেষ্ঠ বইয়ের লেখককে এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত করেন। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। তবে এবারই প্রথম ১২ জন জনপ্রিয় কবি-সাহিত্যিককে এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। নবীণ-প্রবীণদের একসাথে এক আয়োজনে একত্রিত করা হয়েছে এবারের আয়োজনে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ও বাংলা একাডেমির সভাপতি আনিসুজ্জামান। আরো উপস্থিত ছিলেন জুরী বোর্ডের প্রধান বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজী, চ্যানেল আই এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও আনন্দ আলোর সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি ফরিদুর রেজা সাগর, সিটি ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মাসরুর আরেফিন এবং আনন্দ আলোর সম্পাদক ও লেখক রেজানুর রহমান। এ বছর যারা সিটি ব্যাংক আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন তারা হলেন- কথাসাহিত্যে অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘কয়লা তলা ও অন্যান্য’ গ্রন্থের জন্য সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম এবং প্রথমা থেকে প্রকাশিত ‘মামলার সাক্ষী ময়না পাখি’ গ্রন্থের জন্য শাহাদুজ্জামান। কবিতায় অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘পানতুম’ গ্রন্থের জন্য মারুফুল ইসলাম এবং অনন্যা থেকে প্রকাশিত ‘১৯ নম্বর কবিতা মোকাম’ গ্রন্থের জন্য আফজাল হোসেন। প্রবন্ধ ও মুক্তিযুদ্ধ শাখায় কথা প্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘সময় বহিয়া যায়’ গ্রন্থের জন্য সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও প্রিয়মুখ থেকে প্রকাশিত ‘১৯৭১ প্রতিরোধ সংগ্রাম বিজয়’ গ্রন্থের জন্য মেজর জেনারেল মো: সরোওয়ার হোসেন। ভ্রমণ ও আত্মজীবনি শাখায় সময় প্রকাশন থেকে প্রকাশিত ‘সুদুরের অদুর দুয়ার’ গ্রন্থের জন্য ফারুক মঈনউদ্দীন। শিশুসাহিত্য শাখায় কথা প্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘ভ‚ত কল্যান সমিতি’ গ্রন্থের জন্য মুস্তাফিজ শফী, শিশুপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘রঙের গাছ’ গ্রন্থের জন্য মোকারম হোসেন এবং প্রথম বই শাখায় জার্নিম্যান থেকে প্রকাশিত ‘ঘটনা কিংবা দূর্ঘটনার গল্প’ গ্রন্থের জন্য মাজহারুল ইসলাম, অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘নিঃসঙ্গতার পাখিরা’ গ্রন্থের হক ফারুক আহমেদ ও জার্নিম্যান থেকে প্রকাশিত ‘ড়হ ফধুং ষরশব ঃযরং’ গ্রন্থের জন্য শায়রা আফরিদা ঐশী। দিলরুবা সাথীর উপস্থাপনায় পুরো অনুষ্ঠানটি চ্যানেল আইতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।