Home আরোও বিভাগ সিনেমা রোশানের জন্য শুভ কামনা!

রোশানের জন্য শুভ কামনা!

SHARE

প্রায় এক যুগ ধরে ঢালিউডের একমাত্র কান্ডারি যেহেতু শাকিব খানই কাজেই ঈদের ছবি মানেই শাকিব খানের প্রাধান্য থাকবে তাতে কোন দ্বিমত নেই। শুধু প্রাধান্য বললে ভুল হবে প্রায় সব ঈদেই একক আধিপত্য থাকে তার। যদিও বর্তমান সময়ে কিছুটা ভিন্ন চিত্র দেখা যাচ্ছে। তার ছবির পাশাপাশি রিলিজ হচ্ছে নতুন নায়কদের ছবি। কেউ কেউ হালে পানি না পেলেও কেউ উঠে আসছে অনেকটা সম্ভাবনা নিয়েই। এক্ষেত্রে উদাহরণ স্বরূপ সিয়ামের নাম বলা যায়। তেমনি এবারের ঈদেও ঈদের তারকা হিসেবে নাম উঠে আসছে আরেক নতুন মুখ রোশানের। রোশান তেমন অর্থে নতুন মুখ না এর আগে তার তিনটি ছবি রিলিজ হয়েছে। তবে ঈদের ছবির একক নায়ক হিসেবে আসা এটাই তার ক্ষেত্রে প্রথম এবং আসছেন একটি উল্লেখযোগ্য ছবি নিয়েই। ‘বেপরোয়া’ ছবিটি এরই মধ্যে ইউটিউবে ট্রেলারের বদৌলতে আলোচনায় এসেছে ছবিটির নির্মাণশৈলী ও রোশানের উজ্জ্বল উপস্থিতির কারনে। কলকাতার স্বনামধন্য পরিচালক রাজা চন্দ্রের পরিচালনায় ছবিটি জাজ মাল্টি মিডিয়ার। ছবির ট্রেলারে অ্যাকশন দৃশ্য, নির্মাণ এবং গান নিয়ে দর্শকদের মধ্যে যথেষ্ট আগ্রহ তৈরি হয়েছে। ঈদের ছবির তারকা হতে পেরে উত্তেজনায় আছেন রোশান। তিনি বিষয়টি নিয়ে যেমন আনন্দিত এবং গর্বিত তেমন চ্যালেঞ্জও ফিল করছেন। কেননা তাকে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে হচ্ছে ঢালিউড কিং শাকিব খানের সঙ্গে। তবে রোশান আশাবাদী। ছবিটি ব্যাবসা সফল হবে এবং এই ছবিটি তাকে একটা সূদৃঢ় অবস্থানে নিয়ে যাবে।
রোশানের এই আত্মবিশ্বাস শুধু তার একার নয়। আমাদের ইন্ডাস্ট্রির কিছু স্বনামধন্য খ্যাতিমান নির্মাতারাও রোশানের ব্যাপারে আশাবাদী। তেমনি একজন নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান। যিনি এই ইন্ডাস্ট্রির দুই কান্ডারি সালমান শাহ ও শাকিব খানের আবিস্কারক। সোহানুর রহমান সোহান বলেন, রোশানের সম্ভাবনা অনেক ভালো। একজন নায়কের যে যোগ্যতা প্রয়োজন রোশানের মধ্যে তা ভালো মতই আছে। এখন হচ্ছে সেটা প্রোপারলি ব্যাবহার করা। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিরইতো দূরঅবস্থা। যদি আমাদের ইন্ডাস্ট্রি টিকে যায় রোশান একটা ভালো অবস্থান নিবে এতে কোন সন্দেহ নেই। নির্মাতা বাদল খন্দকার বলেন, ছেলেটার কাজ আমার দেখা হয়নি। শিল্পী সমিতিতে কয়েকবার দেখেছি। প্রথম লুকই যাকে দেখলে হিরো মনে হয় রোশানকে দেখে আমার তাই মনে হয়েছে। আকর্ষনীয় লুক, চোখ মুখ কথা বলে। এমন লুকই নায়ক হওয়ার প্রথম যোগ্যতা। তবে কথা হল এমন যোগ্যতা সম্পন্ন নতুন মুখদের নিয়ে কাজ করার মত পরিচালক কোথায়? তারা কাদের হাতে গড়ে উঠবে? যদি সেরকম পরিস্থিতি তৈরি না হয় তাহলে রোশানের মত এরকম আরো যারা যোগ্যতা সম্পন্ন নায়ক আসবে তারা দাঁড়াবে কিভাবে? ছেলেটার মধ্যে আমি যে সম্ভাবনা দেখেছি তাকে প্রোপারলি ব্যবহার করলেই সে একটা অবস্থানে চলে যাবে।
চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, আমার হাত ধরেই রেশানের চলচ্চিত্রে আসার কথা ছিল। আমার একটা ছবির জন্য প্রথম আমি ওকে ডাকি। কিন্তু ছবিটি পরে আর করা হয়নি। তখন সে জাজের হয়ে কাজ করে। তিনি বলেন, রোশানের লুক, কণ্ঠ, বডি ল্যাংগুয়েজ নায়কোচিত। একজন পরিপূর্ণ নায়ক হওয়ার যোগ্যতা সে রাখে। ভালো সুযোগ পেলে এবং ভাগ্য ফেবার করলে সে অনেকদূর এগিয়ে যাবে।
এর আগে আরো ৩টি ছবি রিলিজ হলেও তেমন অর্থে আলোচনায় আসেননি রোশান। তবে সার্বিক ভাবে তার নায়োকোচিত লুক-এর কারণে সিনেমা মহল বা দর্শকদের কাছে একটা পরিচিতি ও গ্রহণ যোগ্যতা পেয়েছেন। তবে ‘বেপরোয়া’ তাকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাবে এটা মনে প্রাণে বিশ্বাস করেন তিনি। রোশান বলেন, বেপরোয়া যদি আমার প্রথম ছবি হতো তাহলে খুব খুশি হতাম। একজন নায়ককে একটি ইন্ডাস্ট্রিতে শক্ত অবস্থান নিয়ে দাঁড়াতে যেমন সিনেমা দরকার বেপরোয়া তেমনি একটি সিনেমা। গল্প, গল্পের উপস্থাপন, ড্রামা, ইমোশন, গান এবং সব শেষে মর্ডানাইজ অ্যাকশন যা বাংলাদেশের সিনেমায় আগে দেখা যায়নি। সব মিলিয়ে একটি সিনেমা যেমন হওয়া উচিত বেপরোয়া তেমনি একটি ছবি। আমার বিশ্বাস এ সিনেমা দেখে দর্শক পরিপূণ তৃপ্তি নিয়ে হল থেকে বের হবেন।