Home ফিচার বিয়েতে সুগন্ধি

বিয়েতে সুগন্ধি

SHARE

বিয়ে জীবনের বিশেষ একটি মুহুর্ত।  দিনটি হওয়া চাই সুবাসিত।  এ জন্য জরুরি সুগন্ধি বাছাই করা।  কারণ বিয়েতে তো আর যেনো তেনো সুগন্ধী ব্যবহার করা যায় না।  তবে  ব্রাইডাল পারফিউম বেছে নেয়ার ক্ষেত্রে ঋতুর রয়েছে বাড়তি গুরুত্ব ।  বছরের উষ্ণ সময়ে বিয়ে হলে সাইট্রাস ও ফ্লোরাল গন্ধযুক্ত পারফিউম বেছে নেয়া ভালো।  আর শীতের মৌসুমে বিয়ে হলে উডি নোটের সুগন্ধিই ভালো।  তাই বিয়ের অনুষ্ঠান কোথায় এবং কখন হচ্ছে- সেটাতে থাকতে হয় বিবেচনায়।  কেননা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত জায়গায় বিয়ে হলে একপ্রকার সুগন্ধি ব্যবহার করা হবে আর গরম কোনো জায়গায় বিয়ে হলে আরেক প্রকার সুগন্ধি ব্যবহার করতে হবে।

বর্তমান সময়ে থিম বেজড ওয়েডিং চালু হয়েছে।  সুগন্ধিতেও তাই থিম ভেদে বেছে নিতে পারেন বিচ ওয়েডিং।  অর্থাৎ সমুদ্র কিংবা এর আশপাশে বিয়ের অনুষ্ঠান হলে ফ্লোরাল কিংবা মেরিন নোটের সুগন্ধি পারফেক্ট।  কিন্তু শহরভিত্তিক বিয়ের অনুষ্ঠানে হ্যাপি, রোমান্টিক, কনফিডেন্ট কিংবা প্রিটি ট্যাগলাইনযুক্ত পারফিউম হতে পারে যুতসই।  গার্ডেন থিমের বিয়ের আয়োজনটা সাধারণত আউটডোরেই হয়ে থাকে।  ফুলে ঘেরা কোনো জায়গায়।  সেক্ষেত্রে মিষ্টি টপ নোট দেয়া ফ্লোরাল পারফিউম ভালো জানাবে পরিবেশের সঙ্গে।  আর আয়োজন যদি হয় আরও নিভৃতে, অর্থাৎ বন কিংবা জঙ্গলে, একদম প্রকৃতি ঘেঁষে, সেক্ষেত্রে লাইট নোটের রোমান্টিক পারফিউম ভালো।  বিশাল কোনো বলরুমে বিয়ের আয়োজন হলে সুগন্ধি হওয়া চাই বিলাসবহুল আর চড়া।  এক্ষেত্রে মাস্কি কোনো নোটের পারফিউম ভালো মানাবে।  রুফটপের আয়োজনে মিষ্টি ফ্লোরাল সুগন্ধি নেয়াটাই ভালো মানাবে।  বিয়ের ভেন্যু যদি ঐতিহাসিক কোনো জায়গায় হয়, তাহলে বেছে নেয়া যেতে পারেন জেসমিন, গোলাপ অথবা লাইলাকে তৈরি ক্ল্যাসিক কোনো ফ্র্যাগরেন্স।

ফ্লোরাল নোট সকালের উৎসবে ছড়াবে বাড়তি স্নিগ্ধতা আর রাতের আয়োজনে মাস্কি কিংবা উডি নোটের পারফিউম দেবে আভিজাত্য।  হানিমুনের সময়টার জন্য আলাদা করে তুলে রাখা যেতে পারে লাইট নোটের রিফ্রেশিং কোনো সুগন্ধি।  পোশাকটাও পারফিউম বাছাইয়ের ক্ষেত্রে বড় ফ্যাক্টর।  গায়ে হলুদের পোশাকের সঙ্গে মানানসই উজ্জ্বল ও গাঢ় গন্ধের পারফিউম যা মানিয়ে যাবে ইভেন্টের উচ্ছলভাবের সঙ্গে।  বিয়েতে সাধারণত শেরওয়ানি আর শাড়িটাই পরা হয়।  যদিও বর্তমানে মেয়েরা গাউন পরছেন বেশি।  এ ক্ষেত্রে স্পাইসি নোটের অ্যারাবিক আন্ডারটোনযুক্ত সুগন্ধি থাকতে পারে অপশন হিসেবে।  আর রিসেপশনে ফরমাল গেটআপের সঙ্গে সুদিং অ্যান্ড সিম্পল নোটের পারফিউমগুলোই সবচেয়ে ভালো যায়।

Perfuim-1-2অনেক ব্র্যান্ডের পারফিউমের সঙ্গে আলাদা বডি লোশন আর শাওয়ার জেলও থাকে।  এ ক্ষেত্রে যদি পুরোটা প্যাকেজ কিনে নেয়া যায় বর-কনের জন্য, তাহলে তো আরও ভালো।  এই প্যাকেজের ব্যবহার ত্বকে পারফিউমের দীর্ঘস্হায়িত্ব বাড়াবে।  বর-কনের পার্সোনালিটি ম্যাচ করা চাই পারফিউমের সঙ্গে, সঠিকভাবে।  রোমান্টিক বর-কনের জন্য সেনস্যুয়াল ফ্লোরাল নোটের ওপর অতি সূক্ষ্ম মাস্কি আন্ডারটোনের পারফিউম বেশ মানাবে।  যাদের অ্যাডভেঞ্চারে আগ্রহ বেশি, তাদের জন্য মেটালিক নোটের সুগন্ধি পারফেক্ট।  এটা ক্লিন, কুল আর ফ্রেশ ফিল দেয়।  ট্র্যাডিশনাল ক্ল্যাসিক বর-কনের জন্য ফুলেল কিংবা ভ্যানিলা নোটের পারফিউম সবচেয়ে উপযুক্ত।  অনেক পারফিউম একসঙ্গে টেস্ট করে না করাই ভালো।  এক দিনে তিনটা, খুব বেশি হলে চারটা ব্যবহার করা যেতে পারে।  একটা ফুল সাইজ সেন্ট কেনার আগে সবচেয়ে ভালো হয়, যদি এর স্যাম্পলটা ট্রাই করে নেয়া যায় প্রথমেই।  স্যাম্পল না থাকলে একদম ছোট সাইজের বোতলটাও কিনে নেয়া যেতে পারে।  আর বাসর রাতে স্নিগ্ধ কোনো পারফিউম বেছে নেয়া ভালো।  ছেলে-মেয়ে দু’জনেই বেছে নিতে পারেন তাদের নিজস্ব ব্র্যান্ডটি।  এ বছর বিয়ে করতে যাওয়া কনেদের পছন্দের তালিকায় থাকতে পারে কার্টিয়ারের লা প্যাথেঁয়া অ দে পারফিউম, এস্টি লডারের মডার্ন মিউস চিক, জো মালোঁর উড সেজ অ্যান্ড সি সল্ট কোলোন, মার্ক জ্যাকবসের ডেইসি ড্রিম, কেলভিন ক্লেইনের রিভিল, ক্লিনিকের বিয়ন্ড রোজ, বসের ম ভিয়, ল্যাঁকয়ের লা ভির এচ্চ বেলে ল’ অ্যাবসলিউ দে পারফিউম কিংবা ডিকেএনওয়াইর এমওয়াই এনওয়াই পারফিউমগুলোর যেকোনোটি।  পাবেন নগরীর বসুন্ধরা সিটি, বাংলা পারফিউম, ইনফিনিটি, ক্যাটস আই, মোস্তফা মার্টসহ বেশকিছু নামিদামি ব্র্যান্ডের দোকানে।  বডি স্প্রেও কিনতে পারেন।  শী, ইটার্নাল লাভ, ডাব, ফোগসহ পাবেন নানান ব্র্যান্ডের পারফিউম।  এগুলোর দাম পরবে ২৮০ টাকা থেকে শুরু করে ৫৬০ টাকা পর্যন্ত।  অন্যদিকে হবু বরদের জন্যও অপশন রয়েছে বেশ কিছু।  সেগুলোর মধ্যে রয়েছে গুচির গিলটি ব্ল্যাক, পোলো বাই রালফ লরেন, জর্জিও আরমানির অ্যাকুয়া ডি জিও, ক্যালভিন ক্লেইন, ওয়াই এস এল এর ল হমেঁ কিংবা টম ফোর্ডেও গ্রে ভাটিভার ইড দে পারফিউম।  এই ব্র্যান্ডসহ আরো নানান ব্র্যান্ডের পারফিউম কেনার জন্য যেতে পারেন নগরীর বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, বাংলা পারফিউম, ইনফিনিটি, ক্যাটস আই, রাফা প্লাজাসহ বিভিন্ন দোকানে।  সুগন্ধি ভেদে এসব ব্র্যান্ডের দাম পড়বে।  তবে সাধারণত ১২০০ টাকা থেকে শুরু করে ১২০০০ টাকার মধ্যে পাবেন নানান ধরনের সুগন্ধি।  অন্যদিকে বডি স্প্রেও কিনতে পারেন।  এক্স, ফোক, এডিডাস, সিনথলসহ আরো নানান ধরনের ব্র্যান্ডের পারফিউম কিনতে পারেন নগরীর সুপার শপসহ নানান দোকান থেকে।  এগুলো সাধারণত ৩২০ টাকা থেকে শুরু করে ৫৮০ টাকার মধ্যেই পাবেন এসব ব্র্যান্ডের বডি স্প্রে।

মডেল: আজাদ, রিমন, মিম চৌধুরী ও তাজরীন।              পারফিউম: বাংলা পারফিউম

ছবি: মাল্টিশাটার