Home বইমেলা প্রতিদিন বাংলা ভাষায় তৈরি করা যাবে ওয়েব ঠিকানা

বাংলা ভাষায় তৈরি করা যাবে ওয়েব ঠিকানা

SHARE
IMG_1726

আর ইংরেজি কিংবা ভিন্ন কোনো ভাষা নয়, খাঁটি বাংলার ব্যবহারে তৈরি করা যাবে ওয়েব ঠিকানা। ভাষার মাস ফেব্রুয়ারি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে ‘ডট বাংলা’ ডোমেইন। বিটিসিএল জানিয়েছে, বিশ্বের যে কোনো প্রান্তে থাকা কেবল বাংলাদেশি নাগরিকরাই বাংলায় নিজেদের ওয়েব সাইট তৈরির সুযোগ পাবেন। নিবন্ধন করতে পারবেন ‘ডট বাংলা’ নামের ডোমেইন।
দুনিয়াজুড়ে ওয়েব সাইটের সংখ্যা অগনিত। প্রয়োজনভেদে বিষয়ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল তো বটেই ব্যাক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠানের নামেও আছে ওয়েবসাইট। অনলাইনে নিজস্ব খেরোখাতা লেখার জন্য আছে ব্লগ। ‘গুগল’ নামের আধুনিক সবজান্তার কাছে পাওয়া যাবে সেই সব ওয়েবের ফিরিস্তি। যেখানে মিলবে ভুড়ি ভুড়ি তথ্য, উপাত্ত, ছবি আর চলচ্চিত্র। কিন্তু এর মাঝেও কী যেন নেই!
তথ্য-উপাত্ত আছে, তবে সেই তথ্য পেতে টাইপ করতে হয় ইংরেজি বর্ণের ওয়েব ঠিকানা। ইংরেজি জানা না থাকায় ইন্টারনেট দুনিয়ার মহা-সমুদ্র দেখা হয়ে ওঠে না অনেকের। এবার আর সেই ঝামেলা থাকছে না। বাংলা জানেন এমন যে কেউই এখন বাংলায় খুঁজে পাবেন ওয়েব ঠিকানা। কেননা, বহু চড়াই-উৎড়াই পেরিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ আর সিয়েরা লিওনের সঙ্গে লড়াই করে অর্জিত ‘ডট বাংলা’ ডোমেইন উন্মুক্ত হয়েছে সবার জন্য।
ডট বাংলা ডোমেইন কিনতে বিটিসিএল-এর ‘বিডিআইএ.বাংলা’ কিংবা bdia.btcl.com.bd তে ঢুকে নির্ধারিত ফরম পূরণ করে পাঠাতে হবে কর্তৃপক্ষের কাছে। যোগ্যতা যাচাই-বাছাইয়ের পর জমা দিতে হবে নির্ধারিত নিবন্ধন ফি। সাধারণ নামের ওয়েব সাইটে প্রথম বার দুই বছরের জন্য খরচ হবে ১ হাজার টাকা। তবে ৫ বছরের জন্য নিবন্ধন নিলে খরচ কমে যাবে কুড়ি শতাংশ আর ১০ বছরের জন্য ত্রিশ শতাংশ।
বিশ্বব্যাপী ডোমেইন নাম নিবন্ধনের অনুমোদিত সংস্থা আইক্যানে’র বরাদ্দ পাওয়ার পর এখন ইংরেজি শব্দের ব্যবহার ছাড়াই তৈরি করা যাবে ওয়েবসাইট। প্রতিষ্ঠান, ব্র্যান্ড তো বটেই নিজের নামেও পাওয়া যাবে ডট বাংলা ডোমেইন।