SHARE
Impress-Film

২০১৭ সালে দেশের বেশ কিছু চলচ্চিত্র জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ব্যবসাসফল ছবিরও সংখ্যাও গেলবারের তুলনায় নেহায়েত কম নয়। তার পাশাপাশি ভিন্ন ধারা ছবিও তৈরি হয়েছে অনেক। বিশেষ করে বাংলাদেশে গল্প নির্ভর চলচ্চিত্র নির্মাণে অনন্য প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ভিন্ন ধারার একাধিক চলচ্চিত্র তৈরি করে প্রশংসিত হয়েছে। এক নজরে দেখে নিন এবছর ইমপ্রেস টেলিফিল্ম-এর আলোচিত কয়েকটি সিনেমার খবর-

খাঁচা: এবছরের ২২ সেপ্টেম্বরে মুক্তি পেয়েছে কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের গল্প অবলম্বনে তৈরি আকরাম খান পরিচালিত ‘খাঁচা’। ৯০তম অস্কার আসরে বিদেশি ভাষার ছবি বিভাগে বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র হিসেবে এটি নির্বাচিত হয়েছে। দেশভাগের গল্পে নির্মিত ‘খাঁচা’ ছবির মূল দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান ও আজাদ আবুল কালাম। এছাড়াও রয়েছেন মামুনুর রশীদ, কায়েস চৌধুরী, শিশুশিল্পী পিদিম।

আঁখি ও তার বন্ধুরা: ২২ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছে জাফর ইকবালের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত মোরশেদুল ইসলামের ছবি ‘আঁখি ও তার বন্ধুরা’। ছবির মূল ভূমিকায় অভিনয় করেছে জাহিন নাওয়ার হক ইশা। অন্ধ কিশোরী আঁখির স্কুল, স্কুলের বন্ধু, অ্যাডভেঞ্চারের গল্প এবং একদল বন্ধুসহ নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবির কাহিনী।

রীনা ব্রাউন: ১৩ জানুয়ারি শামীম আখতার নির্মিত ‘রীনা ব্রাউন’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। মূল গল্পটি ভালোবাসার। তবে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশের অভ্যুদ্বয়, সে সময় ও বর্তমানের সামাজিক-রাজনৈতিক অবস্থা, সংস্কৃতি উঠে এসেছে ছবিটির গল্পে। তেমন কোনো প্রচারণা ছাড়াই ছবিটি মুক্তি পেলেও প্রশংসিত হয়েছে চলচ্চিত্র বোদ্ধাদের কাছে। সরকারি অনুদানে নির্মিত ‘রিনা ব্রাউন’-এর সহ-প্রযোজক হিসেবে ছিল ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। সিনেমাটির এর মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রমা পার্বণী। তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন মাহফুজ রিজভী ও কলকাতার অভিনেতা বরুণ চন্দ।

ভালোবাসা এমনই হয়: ‘ভালোবাসা এমনই হয়’ মুক্তি পেয়েছে এবছরের ২৭ জানুয়ারি। অভিনেত্রী তানিয়া আহমেদ পরিচালিত ‘ভালোবাসা এমনই হয়’ ছবিতে জুটি বেঁধেছেন বিদ্যা সিনহা মিম ও ইরফান সাজ্জাদ। এ ছাড়াও অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, মীর সাব্বির, তানজিকা আমিন, মিশু সাব্বির, রবার্ট ইয়ং, সোহেল খান প্রমুখ। ছবিটি সম্পূর্ণ লন্ডনে চিত্রায়িত হয়েছে।

গ্রাস: এবছরের ২৮ জুলাই মুক্তি পাওয়া গ্রাস ছবিটির কাহিনী মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান তন্ময়কে নিয়ে। তন্ময় চলচ্চিত্র নির্মাতা হতে চায়। কিন্তু তাকে পৃষ্ঠপোষকতা করার মতো কেউ থাকে না। নানা জটিলতায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে পরে সে। হতাশা ‘গ্রাস’ করে তার জীবনকে। ছবিটির কাহিনী, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মারিয়া আফরিন তুষার। এ ছবিতে অভিনয় করেছেন তমা মির্জা, আর. বী প্রীতম, জ্যোতিকা জ্যোতি, রিপন নাথ, কচি খন্দকার, শিখা খান, শেলী আহসান, মুনিরা মিঠু, বাদল শহীদ, রানী সরকার প্রমুখ।

তবুও আলোচিত চলচ্চিত্র অঙ্গণ

Gohin-Balochur২৯ নভেম্বর মুক্তি পেয়েছে বছরের সর্বশেষ সিনেমা বদরুল আনাম সৌদের পরিচালনায় ‘গহীন বালুচর’। এ সিনেমা নিয়ে বছর ভরে মুক্তি পাওয়া সিনেমার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৩। যা গত বছরের চাইতে বেশি। ব্যবসায়িক আয়েও ২০১৬ কে ছাড়িয়ে গেছে এ বছরের চলচ্চিত্র। এর মধ্যে ব্যবসা করেছে ১২টি চলচ্চিত্র। সাফল্যের শীর্ষে রয়েছে দেশীয় প্রযোজনার ‘ঢাকা অ্যাটাক’ এবং যৌথ প্রযোজনার ‘নবাব’। ব্যবসার তালিকায় সেরা ৫-এ রয়েছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’, ‘নবাব’, ‘রাজনীতি’, ‘হালদা’ এবং ‘অন্তরজ্বালা’।

ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় আরো রয়েছে হাসিবুর রেজা কল্লোলের ‘স্বত্ত্বা’, ‘বস ২’, জাকির হেসেন রাজুর ‘প্রেমী ও প্রেমী’, শামীম আহমেদ রনির ‘ধ্যাততেরিকি’, জাহাঙ্গীর আলম সুমনের ‘সোনাবন্ধু’ এবং শাহাদাত হোসেনের ‘অহংকার’। আর আলোচিত হয়েছে ফাখরুল আরেফিনের ‘ভুবন মাঝি’, মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’, অনিমেষ আইচের ‘ভয়ংকর সুন্দর’, আকরাম হোসেনের ‘খাঁচা’, শামীম আহমেদ রনির ‘রংবাজ’ এবং মনতাজুর রহমান আকবরের ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’।

বছরের শেষ ৩ মাস ধরে ঢাকার চলচ্চিত্র ছিল সাধারণ মানুষের আলোচনায়। তাছাড়া এ বছর যৌথ প্রযোজনার বিরুদ্ধে আন্দোলন, শাকিব খানের ওপর শিল্পী সমিতির নির্বাচনে হামলা-মামলা, সেন্সর বোর্ড সদস্য ইফতেখার উদ্দিন নওশাদের ওপর হামলা, শাকিব খানের ওপর নিষেধাজ্ঞা, শাকিব-অপু বিচ্ছেদ, চলচ্চিত্রে হুমায়ুন আহমেদের চরিত্রায়ন নিয়ে ঝড়-সব মিলিয়ে প্রায় ম্রিয়মাণ হয়ে আসা বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নদীতে জোয়ারের সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে বিদায় বছরে।

ঢাকা অ্যাটাক: ৬ অক্টোবর সারা দেশের ১২৭ টি সিনেমা হলে মুক্তি পায় দীপঙ্গকর দীপনের প্রথম পরিচালনায়  থ্রিলার ঘরাণার প্রথম চলচ্চিত্র ‘ঢাকা অ্যাটাক’। শুভ, মাহি, সুমনের অভিনয়ে চলচ্চিত্রটি প্রচারের ব্যবপকতা, অভিনবত্ব এবং সুপরিচালনায় পুরো দেশ কাঁপিয়ে দেয়। এখনও চলছে ছবিটি দেশের বিভিন্ন হলে। দেশের বাইরেও সাড়া পেয়েছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’। পুলিশ পরিবার এবং থ্রি হুইলার্সের প্রযোজনায় নির্মিত ছবিটি দেশ ও দেশের বাইরে আয় করেছে প্রায় সাড়ে ৯ কোটি টাকা।

নবাব: শাকিব খান এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নায়িকা শুভশ্রীর প্রথম জুটিবদ্ধ যৌথপ্রযোজনার ছবি নবাব মুক্তি পায় রোজার ঈদে। নানা আলোচনা সমালোচনা এবং আন্দোলনের মধ্যে। ছবিটি মুক্তির বিরুদ্ধে দাড়ায় চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংগঠন। অন্যদিকে মুক্তির পক্ষে দাড়ায় হল মালিক এবং পরিবেশক সমিতি। ১২০টি সিনেমা হলে মুক্তি পায় জাজ মাল্টিমিডিয়া ও ভারতের এসকে ফিল্মস প্রযোজিত এ ছবি। গতিময়তা এবং শাকিব-শুভশ্রী রসায়নে দারুণ ব্যবসায়িক সাফল্যের মুখ দেখে চলচ্চিত্রটি। দেশের বাইরে বিশেষ করে মধ্যপাচ্য এবং মালয়শিয়ায় বাংলাভাষীদের মধ্যে সাড়া ফেলে নাবাব। আয় করেছে প্রায় ৯ কোটি টাকা।

রাজনীতি: রোজার ঈদে ‘নবাব’ এবং ‘বস২’ এর চাপে পড়ে কম সিনেমা হলে মুক্তি পায় বুলবুল বিশ্বাসের পরিচালনায় প্রথম চলচ্চিত্র ‘রাজনীতি’। শাকিব খানের বিপরীতে চলচ্চিত্রটিতে ছিলেন অপু বিশ্বাস। মৌলিক গল্প, সুনির্মাণ এবং অভিনয়ে দর্শকগ্রহণযোগ্যতা আদায় করে নেয় ‘রাজনীতি’। প্রথম সপ্তাহের পর থেকে সারা দেশের বিভিন্ন সিনেমা হলে ছবিটির প্রদর্শণ উত্তোরত্তর বেড়েছে।

হালদা: তৌকীর আহমেদ এর পরিচালনায় পঞ্চম স্বল্পবাজেটের চলচ্চিত্র ‘হালদা’ নির্মাণ মুন্সীয়ানা, অসাধারণ অভিনয় এবং পরিবেশনা দক্ষতায় ব্যবসা সাফল্য পেয়েছে পরিবেশ এবং প্রেমের চলচ্চিত্র ‘হালদা’। ৭০ লক্ষ টাকা বাজেটের চলচ্চিত্রটি প্রথম সপ্তাহে ৮২ টি সিনেমা হলে মুক্তি পায়। দেশের বাইরে বিশ্বের বিভিন্ন সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ছবিটি।

অন্তর জ্বালা: পরীমণির অসাধারণ অভিনয়ে ১৫ ডিসেম্বর মুক্তি পায় মালেক আফসারীর পরিচালনায় ২৪ তম চলচ্চিত্র ‘অন্তরজ্বালা’। পরীমণির বিপরীতে চলচ্চিত্রে ছিলেন জায়েদ খান। প্রযোজকের ভাষ্য অনুযায়ী রেকর্ড ১৭০ হলে মুক্তি পেয়েছিল চলচ্চিত্রটি। হল তালিকা ঘোষণার কথা থাকলেও ঘোষণা দেননি প্রযোজক জায়েদ খান। পরিবেশক সমিতির সুত্রমতে, ১২০টির মত মত সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। প্রযোজক এবং পরিচালকের ভাষ্যমতে ২ কোটি টাকা ব্যায়ের চলচ্চিত্রটি টেলিভিশন রাইটস, হলের আয় এবং ইনার ব্র্যান্ডিং দিয়ে খরচ তুলে নিয়েছে ইতিমধ্যে। ’

সমানে সমান: বিদায়ী বছরে শাকিব খান ও পরীমণি ছবি মুক্তির দিক দিয়ে ছিলেন সমানে সমান। দুজনেরই ৫টি করে চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছে এ বছরে। শাকিব খান অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত ছবিগুলো হচ্ছে ‘স্বত্ত্বা’, ‘রাজনীতি’, নবাব’, ‘রংবাজ’ এবং ‘অহংকার’। সবগুলো ছবি ব্যবসায় সাফল্য পেয়েছে। সমা খান।

অন্যদিকে নায়িকা পরীমণি’র অভিনীত ৫টি চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছে। এগুলো হলো ‘কত স্বপ্ন কত আশা’, ‘আপন মানুষ’, ‘অন্তর জ্বালা’, ‘সোনা বন্ধু’ এবং ‘ইনোসেন্ট লাভ’। এর মধ্যে ব্যবসায়িক সাফল্য পেয়েছে দুটি চলচ্চিত্র। আলোচনায় ছিল ‘আপন মানুষ’ চলচ্চিত্রটি’।