SHARE

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগের মতো যখন খুশি তখন বইমেলায় আসতে ইচ্ছে করে। স্বাধীনভাবে ঘুরতে, আড্ডা দিতে ইচ্ছে করে। কিন্তু রাষ্ট্রীয় ব্যস্ততার কারণে এখন আর সেটা পারি না। তবে সারাক্ষণ মন পড়ে থাকে বইমেলায়। প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, আমাদের এই বইমেলাকে কাগজে কলমে অমর একুশে গ্রন্থমেলা বলা হয়। কিন্তু গ্রন্থমেলার চেয়ে বইমেলা বলতে অনেক আরাম লাগে। এখন থেকে গ্রন্থমেলার বদলে প্রাণের এই মেলাকে বইমেলা বলা উচিৎ। গতকাল রবিবার বাংলা একাডেমী আয়োজিত মাসব্যাপী একুশে বইমেলার উদ্বোধন কালে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেছেন।
বাংলা একাডেমীর সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, সংস্কৃতি সচিব মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল এবং বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজী বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারপ্রাপ্ত ১০জন গুণী কবি সাহিত্যিকের হাতে পুরস্কার তুলে দেন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত ‘আমার দেখা নয়া চীন’ গ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন করেন। বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ২০১৯ প্রাপ্ত কবি, লেখক বৃন্দ যথাক্রমে অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার সহ বিভিন্ন বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ গোটা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হয়ে উঠেছে। রক্ত দিয়ে স্বাধীন করা এই দেশকে কেউ আর হেয় করতে পারবে না। দেশের শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে আরও এগিয়ে নেওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, অনুবাদ সাহিত্যের প্রতিও আমাদেরকে গুরুত্ব দিতে হবে।