Home সাক্ষাৎকার নাটকটির মায়ায় পড়ে গেছি!- অপি করিম

নাটকটির মায়ায় পড়ে গেছি!- অপি করিম

SHARE

অপি করিম। এক নামেই যার ব্যাপক পরিচিতি। একজন গুণী অভিনেত্রী এবং নৃত্যশিল্পী। টিভি নাটকের নির্ভরযোগ্য তারকা তিনি। ‘রেখা’ ধারাবাহিকের নাম ভ‚মিকায় অভিনয় করেছেন। এক সাক্ষাৎকারে নাটকটির প্রসঙ্গ উঠতেই ব্যাপক উচ্ছ¡াস প্রকাশ করে বললেন, ও, রেখার কথা বলছেন তো? নাটকটিতে অভিনয় করে আমি দারুন আনন্দ পেয়েছি। আমার বিশ্বাস আমাদের এই ধারাবাহিক নাটকটি সবার ভালো লাগবে এবং ব্যাপক আলোচিত হবে। অপির সাক্ষাৎকারের চম্বুক অংশ প্রকাশ করা হলো।
আনন্দ আলো: আপনার নাম তো রেখা। কেমন আছেন?
অপি করিম: (মৃদু হেসে) রেখার কথা তুললেন দেখে খুব ভালো লাগছে। অতি সম্প্রতি নেপালে গিয়ে এই ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করেছি। নাটকের একটি কেন্দ্রীয় চরিত্রের নাম রেখা। তার নামেই নাটকের নাম রাখা হয়েছে।
আনন্দ আলো: অনেকদিন পর ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করলেন। অনুভ‚তি জানতে চাই।
অপি করিম: অনুভ‚তি এক কথায় অসাধারন। কেন অসাধারন তারও একটি ব্যাখ্যা দিতে চাই। আফজাল হোসেন আমাদের দেশের একজন গুণী অভিনেতা এবং নির্মাতাও বটে। তার সাথে জুটি বেধে অভিনয় করতে পারাটা সত্যি আনন্দের ব্যাপার। আফজাল হোসেন আমাদের কাছে শুধু একজন নায়ক নন, তিনি মহানায়ক। একই ফ্রেমে তার সাথে অভিনয় করতে পারা অনেক ভাগ্যেরও বটে। সুদুর নেপালে নাটকটির শুটিং হয়েছে। আমি সাধারনত বিদেশে শুটিং করতে যাই না। বহু বছর আগে মাহফুজ ভাইয়ের সাথে ইটালী ও ভিয়েনায় দুটি নাটকের শুটিং করতে গিয়েছিলাম। এবার গিয়েছিলাম নেপালে। কেন গিয়েছিলাম জানেন? আফজাল হোসেনের সাথে অভিনয় করার সুযোগ পাব বলে গিয়েছিলাম। তাছাড়া নাটকের গল্পটিও আমাকে অভিনয়ের জন্য আগ্রহী করে তুলেছিল।
আনন্দ আলো: আফজাল হোসেনের সাথে জুটি বেধে অভিনয় করলেন। অনুভ‚তির কথা জানতে চাই।
অপি করিম: আফজাল হোসেনের সাথে জুটি বেধে এর আগেও একাধিক নাটকে অভিনয় করেছি। অনেক বছর পর আবার এক সাথে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছিলাম। আফজাল হোসেনের মতো লিজেন্ড তারকার সাথে অভিনয়ের সুযোগ পাওয়া মানেই অভিনয়ের ব্যাপারে অনেক কিছু শেখার সুযোগ পাওয়া। রেখা’য় আমরা স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছি। কাহিনীতে দেখা যায় দু’জনের সম্পর্কের রসায়নটা অনেক মায়াময়। স্বামী-স্ত্রী পরস্পরকে গভীর ভাবে ভালোবাসে। শ্রদ্ধাও করে। নাটকটিতে অভিনয় করে অনেক আনন্দ পেয়েছি। আমার বিশ্বাস নাটকটি দর্শকদের অনেক পছন্দ হবে।
আনন্দ আলো: এবার একটি অন্য প্রসঙ্গে আসি। দেশে এখন অনেক টিভি চ্যানেল। গত ঈদেও কয়েকশ নাটক বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে প্রচার হয়েছে। টিভি নাটকের মান নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। আপনার মন্তব্য জানতে চাই।
অপি করিম: (ভেবে) আমি তো খারাপ কিছু দেখি না। অনেক টিভি চ্যানেলে অনেক নাটক প্রচার হবে এটাই স্বাভাবিক। কোয়ানটিটি বেশি হলে কোয়ালিটি নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে। তবে অনেক ভালো নাটক হচ্ছে। কিন্তু আমরা ভালোর দিকে তেমন একটা তাকাই না। ভালোর দিকেও আমাদের নজর দেওয়া উচিৎ। গত ঈদে আমার মোট ৩টি নাটক প্রচার হয়েছে। পরিচিত দশজনকে আমার একটি নাটক দেখার জন্য বলেছিলাম। তাদের মধ্যে দু’জন নাটকটির পুরো অংশ দেখেছে। অভিনয়ের প্রশংসা করেছে। বাকী ৮ জনের অনেকে বলেছে সময়ের অভাবে দেখতে পারে নাই। সময় করে ইউটিউবে দেখে নিবে বলে জানিয়েছে। এখন চলছে পরিবর্তনের যুগ। কাজেই বাস্তবতাকে অস্বীকার করলে তো হবে না। বাস্তবতাকে মেনেই ভালো কাজ করতে হবে।
আনন্দ আলো: আবার রেখা নাটকের প্রসঙ্গে আসি। রেখা অনেক মায়াময় একটি চরিত্র। বাস্তবে এমন মায়াময় চরিত্র কি আছে?
অপি করিম: হ্যা আছে। কিন্তু আমরা হয়তো খুজতে চাই না। সবাই রেখা হতে চায়। সবাই রেখাকে পেতেও চায়। কিন্তু রেখাকে পেতে হলে অদ্ভুত এক মায়ার দরকার। আমরা কি সংসার জীবনে মায়ার ব্যাপারটাকে গুরুত্ব দেই?