SHARE

মিস লাভলির শ্যুটিংয়ের সময় নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি যে ধরনের ব্যবহার করেছিলেন তাঁর সঙ্গে, তা ভুলতে পারবেন না কখনও। উলটো নওয়াজ তাঁর নিজের বইতে তাঁর ছবি এঁকেছেন এক্কেবারে অন্যরকমভাবে। নওয়াজউদ্দিনকে এমনই মন্তব্য করলেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া নিহারিকা সিং।

‘মিস ইন্ডিয়া’ নীহারিকা বলেন, ‘মিস লাভলি’ ছবির শুটিংয়ের সময় নওয়াজের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করি। ওই সময়ে সারারাত শুট করে সকালে নওয়াজ আমার বাড়ি আসতে চায়, আমি ওকে ব্রেকফাস্টের জন্য আমন্ত্রণ জানাই। কিন্তু দরজা খুলতেই ও আমাকে জড়িয়ে ধরে । আমি ছাড়াতে চাইলেও ছাড়ে না। আমিও শেষে হাল ছেড়ে দিই। এ রকম শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের জন্য নওয়াজ প্রায় জোর করত আমায়।’

নীহারিকা জানান, তাদের সম্পর্ক নিয়ে নওয়াজের সঙ্গে আলোচনা করতে চাইলে নওয়াজ তাকে বলতেন, ‘আমার স্বপ্ন ছিল, আমার স্ত্রী হবে মিস ইন্ডিয়া বা একজন অভিনেত্রী, যেমন মনোজ বাজপেয়ী আর পরেশ রাওয়াল করেছেন।’ যদিও আত্মজীবনী ‘অ্যান অর্ডিনারি লাইফ: আ মেময়ারে’ নীহারিকার সম্পর্কের কথা স্বীকার করে নওয়াজ লেখেন, ‘নীহারিকার সঙ্গে কিছুদিন আলাপের পর ওকে বাড়িতে মাটন খেতে ডাকি। এরপর আমাকে ওর বাড়িতে ডাকল। বলল, ‘মাটন খাওয়াবে’। আমি সে দিন প্রথমবার নীহারিকার বাড়ি গেলাম। দরজা বন্ধ ছিল। তা খোলামাত্র দেখে অবাক হলাম। দেখলাম, হাজারটা মোমবাতির আলো। আমি ওকে জড়িয়ে ধরে সোজা বেডরুমে নিয়ে চলে গেলাম। সেই শুরু হলো আমাদের প্রেম। মাত্র দেড় বছর ছিল সেই সম্পর্ক।’

শুধু তাই নয়, নিজের বইতে নওয়াজ যেভাবে তাঁর ছবি এঁকেছেন, তা একেবারে অহেতুক। তিনি কখনওই নওয়াজের সামনে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে চাননি। ফলে নওয়াজের আঁকা ছবিতে তিনি যেভাবে মানুষের সামনে ধরা দিয়েছেন, তা অহেতুক বলেও দাবি করেন নিহারিকা। পাশাপাশি হঠাত করে সাফল্য পাওয়ার ফলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছেন নওয়াজউদ্দিন। তার জেরেই তিনি মহিলাদের সঙ্গে ওই ধরনের ব্যবহার করেন বলেও দাবি করেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া।

পাশাপাশি, মিস লাভলির শ্যুটিংয়ের সময় নওয়াজ তাঁকে জানান, পরেশ রাওয়াল এবং মনোজ বাজপেয়ী যেমন অভিনেত্রীকে স্ত্রী হিসেবে পেয়েছেন, তাঁরও ইচ্ছা ছিল কোনও অভিনেত্রীকেই বিয়ে করবেন কিংবা কোনও মিস ইন্ডিয়া তাঁর বান্ধবী হবেন। নিহারিকাকে পেয়ে, তাঁর সেই ইচ্ছা পূর্ণ হয়েছে বলেও সেদিন দাবি করেন নওয়াজউদ্দিন।