Home টি-২০ আড্ডা তখন আমার মাথার তার ছিঁড়ে যায়!-স্বাগতা

তখন আমার মাথার তার ছিঁড়ে যায়!-স্বাগতা

SHARE
Shagota

মোহাম্মদ তারেক

আনন্দ আলো: স্বাগতা নামের অর্থ কী?

স্বাগতা: স্বাগতা নামের অর্থ স্বাগতম।

আনন্দ আলো: এত কাজ থাকতে অভিনয়ে এলেন কেন?

স্বাগতা: এটাই হয়তো আমার জীবনের গন্তব্য ছিল তবে ব্যাপারটা আমি বুঝতে পারিনি। পরিচালকরা বুঝতে পেরে আমাকে প্রচুর কাজ দিয়েছে। এখন অভিনয় ব্যাপারটা নেশার পাশাপাশি পেশাও হয়ে উঠেছে।

আনন্দ আলো: অভিনয় জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় যে কাজ অর্থাৎ কোন নাটকটি?

স্বাগতা: আব্দুল্লাহ আল মামুনের ‘একজনমে’ নাটকটি আমার অভিনয় জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। বড় হওয়ার পর এটাই ছিল আমার প্রথম নাটক।

আনন্দ আলো: অভিনয় ছাড়া আর যা ভালো করতে পারেন।

স্বাগতা: গান গাইতে পারি। নাচতে পারি। গিটার বাজাতে পারি। গাড়ি ড্রাইভ করতে পারি। এমন কি ভালো রান্নাও করতে পারি।

আনন্দ আলো: কোনো গ্রামে আপনি শুটিং করতে গেলেন। ক্যামেরা, লাইট, অ্যাকশন বলার সঙ্গে সঙ্গে আপনার কণ্ঠে পুরুষালি কথা বের হতে লাগল, তখন আপনি কী করবেন?

স্বাগতা: আমি খুব সুন্দরভাবে হিজড়ার চরিত্রে অভিনয় করে যাব।

আনন্দ আলো: একদিন সকালে ঘুম থেকে জেগে দেখলেন আপনার সামনে দাঁড়িয়ে আছে চিত্রনায়ক মান্না। তাকে দেখে আপনি কী করবেন?

স্বাগতা: তাকে দেখে প্রথমে আমি যে কথাটি বলতে চাইব সেটা হচ্ছে মান্না ভাই আপনি সে সব উপদেশ দিয়েছিলেন তা আমার মানা উচিত ছিল। কিন্তু আমি তা মানিনি। সেজন্য অনেক লস করেছি। আমি বুঝতে পারেনি ‘শত্রু শত্রু খেলা’ ছবিটি আমার জীবনে অ্যাচিভমেন্ট হয়ে থাকবে।

আনন্দ আলো: হঠাৎ ছিনতাইকারীর কবলে পড়লে কী করবেন?

স্বাগতা: আমি কয়েকবার ছিনতাইকারীর কবলে পড়েছিলাম। সে করুণ অভিজ্ঞতা।

আনন্দ আলো: যে প্রশ্ন শুনতে শুনতে ক্লান্ত…

স্বাগতা: একেক সময় একেক ধরনের প্রশ্ন। আমি যখন বিয়ে করেনি তখন সবাই বলতো, তুমি বিয়ে কর না কেন? বিয়ে কর না কেন? বিয়ে করার পর এখন বলে, তুমি বাচ্চা নেওনা কেন?

আনন্দ আলো: আপনি নাকি ফেসবুকে মেকআপ শিখাচ্ছেন?

স্বাগতা: অনেক আগে থেকেই ইচ্ছে ছিল সময় পেলে ভক্তদের মেকআপ করা শেখাব। ব্যস্ততার কারণে এতদিন হয়ে ওঠেনি। এবার কাজটা করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। মেকআপ আমাদের প্রতিদিনের একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। মেকআপের ওপর চেহারার সৌন্দর্য অনেকাংশে নির্ভর করে। শরীরের রংয়ের সঙ্গে সমন্বয় রেখেই মেকআপের রং বাছাই করতে হয়। অনেকেই তা জানেন না। অভিনয়ের কারণে প্রতিনিয়তই আমাদের মেকআপ নিতে হয়। এর ফলে মেকআপের অনেক কিছুই শিখেছি। আমার ভক্তরা যাতে এগুলো শিখতে পারে সেজন্যই এ উদ্যোগ।

আনন্দ আলো: আপনার সোনালি দিনের রূপালি গল্পটা বলুন?

Shagota-1স্বাগতা: টেলিভিশনের জন্য এটি একটি চলচ্চিত্র বিষয়ক অনুষ্ঠান। পুরনো দিনের সিনেমার নানান মজার মজার গল্প নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে এটি। দর্শক নিরাশ হবেন না- এতটুকু বিশ্বাস আমার রয়েছে।

আনন্দ আলো: যে নাটক দেখে প্রচণ্ড হেসেছেন…

স্বাগতা: হুমায়ূন স্যারের ‘বহুব্রিহি’ নাটকের ডিভিডি কিনে দেখেছি আর হেসেছি।

আনন্দ আলো: যে নাটক দেখে কেঁদেছেন…

স্বাগতা: ইমপ্রেস টেলিফিল্ম-এর ছবি তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘অজ্ঞাতনামা’ ছবিটি আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে। ছবিটি যতবার দেখেছি মনে মনে কেঁদেছি।

আনন্দ আলো: বন্ধুরা যে কারণে সবচেয়ে বেশি খ্যাপায়…

স্বাগতা: একটা সময়ে আমি সারাদিন খালি বাপি বাপি করতাম সেজন্য বন্ধুরা সবচেয়ে বেশি খ্যাপাতো।

আনন্দ আলো: গোপন কোন্‌ কথাটি স্বামীর কাছে বলেন না?

স্বাগতা: যে কথা শুনলে খেপে যাবে সেকথা বলতে চাই না। এছাড়া ওকে মনের কথা সবই বলে দেই।

আনন্দ আলো: একটি নাটকে মেথরানির চরিত্রে অভিনয় করেছেন। বাস্তবে যদি আপনি মেথরনি হয়ে যান তখন কী করবেন?

স্বাগতা: মেথরনি হলে খুবই মজা হবে। চা-পান খাব। আর রাসৱায় রাসৱায় ঘুরে বেড়াব।

আনন্দ আলো: গরু চুরি বিষয়ক এক নাটকে আপনাকে দেখা গেছে। গরু চোরের সঙ্গে আপনি কী জড়িত ছিলেন?

স্বাগতা: জি। গরু চোরের টিমের সঙ্গে আমি ছিলাম। নাটকটা অনেক ভালো হয়েছিল।

আনন্দ আলো: ভূতের খপ্পরে কখনো পড়েছিলেন?

স্বাগতা: আমি ভূত বিশ্বাস করি না। কিন্তু আমি বিভিন্ন সময়ে ভূতের খপ্পরে পড়েছিলাম। গরম ভাত ও নিছক ভূতের গল্প নাটকসহ বেশ কিছু নাটকে আমি ভূতের চরিত্রে অভিনয় করেছি। তবে কখনোই কুৎসিত ভূত হয়নি। সর্বদাই সুন্দরী ভূত হয়েছিলাম।

আনন্দ আলো: খুব রেগে যান যখন…

স্বাগতা: যখন দেখি নিয়মের কোনো কিছুই হচ্ছে না। চারদিকে অরাজকতা, কেউ কোনো কিছূ না শিখে কাজ করতে আসে। তখন আমার মাথার তারগুলো ছিঁড়ে যায়। তখন খুব রেগে যাই।

স্বপ্ন দেখেন। ঘটনা কী?

স্বাগতা: জেগে জেগে স্বপ্ন না দেখলে তো ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করা যায় না।

আনন্দ আলো: প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে মনে মনে কী বলেন?

স্বাগতা: আই মিসিং ইউ বাপি। কারণ প্রতিদিন বাপি আমাকে ঘুম থেকে উঠাতো।