SHARE

মোহাম্মদ তারেক
চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ প্রতিযোগিতা থেকে উঠে আসা শিল্পীদের মধ্যে যারা ইতোমধ্যে প্লেব্যাক, অডিও অ্যালবাম, মিউজিক ভিডিও এবং স্টেজ প্রোগ্রামে যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম নুজহাত সাবিহা পুস্পিতা। সঙ্গীতের প্রতিটি বিভাগেই সমান তালে এগিয়ে চলেছেন ক্ষুদে গানরাজের এই শিল্পী। ধীরে ধীরে তার পরিচিতি ছড়িয়ে পড়ছে সারাদেশে। ২০১৫ সালে বুস্টার এনার্জি বিস্কুট চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন পুস্পিতা। একাগ্রতা, নিষ্ঠা, সততা, পরিশ্রম, ধৈর্য, অধ্যবসায় ও ওস্তাদদের সঠিক দিক নিদের্শনা পুস্পিতাকে সাফল্যের পথে এগিয়ে যেতে সাহস যোগাচ্ছে। তাইতো ক্ষুদে গানরাজ চ্যাম্পিয়নের মুকুট উঠে তার মাথায়। চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ প্রতিযোগিতাকেই জীবনের অন্যতম টার্নিং পয়েন্ট মনে করেন পুস্পিতা। এরপর থেকে তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ‘ঝিনুক ফোটা সাগর ভেলায়’, ‘ভ্রমর কইায়ো গিয়া’ গান দুটি দিয়ে সংগীতানুরাগীদের নজরে আসেন পুস্পিতা। এরপর বেশ কয়েকটি মিক্সড অ্যালবামে কণ্ঠ দিয়েছেন। তবে তার স্বপ্ন ছিল মৌলিক গানের একক অ্যালবাম প্রকাশ করার। সেই স্বপ্নটাও সত্যি হয়েছে। গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে ইমপ্রেস অডিও ভিশন থেকে প্রকাশিত হয় তার মৌলিক গানের প্রথম একক অ্যালবাম ‘অনুভবে তুমি’। অ্যালবামের গানের কথাগুলো লিখেছে মেজর আনিসউল ইসলাম (অব:), জামাল রেজা, সুজন আরিফ ও নুসরাত বৃষ্টি। সুর করেছেন সুজন আরিফ ও বিনোদ রায়। সার্বিক তত্ত¡াবধানে ছিলেন আজম বাবু। জীবনের প্রথম একক অ্যালবামটি প্রকাশিত হওয়ায় পর শ্রোতাদের কাছ থেকে অনেক ফিডব্যাক পেয়েছিলেন তিনি। ‘অনুভবে তুমি’ অ্যালবামেরÑ ‘ঘুম পাড়ানি’, ‘প্রাণে আমার খুশীর ঝিলিক’, ‘এই বরষায় কি যে অসহায়’, ‘চাইনা আমি রাজার কুমার’, ‘প্রেমের নদী খরায় কাঁদে’, ‘তোমার সনে দেখা’, ‘তুমি সুন্দর কি যে সুন্দর’, গান গুলো শ্রোতাদের কাছে বেশ জনপ্রিয়তা পায়।
একক অ্যালবাম প্রসঙ্গে পুস্পিতা জানান, জীবনের প্রথম সলো অ্যালবামটি নিয়ে এত সাড়া পাব কখনো ভাবিনি। সবার পজেটিভ রেসপন্স দেখে আমি খুবই আনন্দিত। বেশ যতœ নিয়ে অ্যালবামের গানগুলো করেছি প্রতিটি গানের মধ্যে ভিন্নতা আছে। আমি শ্রোতাদের জন্য গাই, তাদের ভালোবাসায় গানের জগতে প্রতিষ্ঠা পেতে চাই।
এ প্রজন্মের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পুস্পিতার প্রথম মিউজিক ভিডিওটি কিছুদিন আগে ইমপ্রেস অডিও ভিশনের ব্যানারে প্রকাশিত হয়েছে চ্যানেল আই-এর ইউটিউব চ্যানেলে। গানটির শিরোনাম ‘স্বপ্নঘুড়ি’। আসাদ ইসলামের সার্বিক তত্ত¡াবধানে গানটির কথা লিখেছেন জামাল রেজা, আর সুর করেছেন আরিফ সুজন। সঙ্গীতায়োজনে আজম বাবু। ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন ইশতিয়াক আহমেদ। ভিডিওতে পুস্পিতার সাথে মডেল হয়েছেন মডেল ও অভিনয় শিল্পী পায়েলিয়া পায়েল ও শাহরিয়ার শাহেদ। এরই মধ্যে তার ‘স্বপ্নঘুড়ি’ মিউজিক ভিডিওটি বেশ সাড়া ফেলেছে। মিউজিক ভিডিও প্রসঙ্গে পুস্পিতা বলেন, অনেকদিন ধরেই আমার ভক্ত-শ্রোতারা আমার গানের মিউজিক ভিডিও চেয়ে অনুরোধ করে আসছেন। তাদের কথায় ‘স্বপ্নঘুড়ি’ গানটি মিউজিক ভিডিও আকারে প্রকাশ করেছি চ্যানেল আই-এর ইউটিউব চ্যানেলে। এটা আমার প্রথম মিউজিক ভিডিও। আমার ধারণা শ্রোতারা গানটি গ্রহণ করেছে।
গাইবান্ধার মেয়ে পুস্পিতা দুই ভাই বোনের মধ্যে বড়। ছোটবেলা থেকে সংগীতের প্রতি তার প্রচন্ড আগ্রহ। টিভিতে প্রচারিত গানের অনুষ্ঠান গুলো খুব আগ্রহ নিয়ে দেখত। সারাক্ষণ গুন গুন করে গান গাইত। গানের প্রতি মেয়ের আগ্রহ দেখে বাবা-মা তাকে বুলবুল ললিতা একাডেমী (বাফা) খিলগাঁও শাখায় ভর্তি করে দিয়েছিলেন দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়ার সময়। এটি ছিল ৪ বছরের কোর্স। তারপর বাংলাদেশ শিশু একাডেমি থেকে তিন বছরের কোর্স সম্পন্ন করেন। সংগীতে পুস্পিতার হাতে খড়ি বাফার শিক্ষক তাপস চক্রবর্তীর কাছে। তারপর বাংলাদেশ বেতারের প্রধান সংগীত পরিচালক আতিকুর রহমান, বিশিষ্ট সুরকার ও সংগীত পরিচালক লোকমান হাকিম এবং বাংলাদেশ শিশু একাডেমির সামসুল হুদার কাছে তিনি সংগীতের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।
চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন যওয়ার পর থেকে পুস্পিতা বিশিষ্ট নজরুল সংগীত শিল্পী ফেরদৌস আরা প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত ‘সুরসপ্তক’ এ নজরুল সঙ্গীতে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। বর্তমানে তিনি ছায়ানটের শিক্ষার্থী। ছোটবেলা থেকেই গানের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে প্রথম হতেন। শুধু ক্ষুদে গানরাজে চ্যাম্পিয়ন হওয়াই নয় জাতীয় শিশু কিশোর প্রতিযোগিতা, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর সংগীত প্রতিযোগিতা, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, ক্সামব্রিয়ান আন্তর্জাতিক শিশুমেলা এবং মার্কস অলরাউন্ডার সহ বিভিন্ন সংগীত প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়ার গৌরব অর্জন করে।
সম্প্রতি জি-সিরিজের ব্যানারে প্রকাশিত হয়েছে পুস্পিতার নতুন একটি গান। ‘এলোমেলো হাওয়া’ শিরোনামের গানটিতে সেরাকণ্ঠের মেহেদীর সঙ্গে দ্বৈতকণ্ঠ দেন তিনি। বর্তমানে পুস্পিতা নতুন অ্যালবামের কাজ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। পাশাপাশি স্টেজ পারফর্ম করে যাচ্ছেন নিয়মিত। অ্যালবামটি প্রসঙ্গে পুস্পিতা বলেন, আমার দ্বিতীয় একক অ্যালবামের কাজ চলছে। একটু সময় নিয়ে অ্যালবামটা করছি। অ্যালবামটি সাজানো হবে দেশের গান, ফোক গান ও মায়ের ওপর লেখা গান দিয়ে। গান গুলোর সুর করছেন বিশিষ্ট সুরকার ও সংগীত পরিচালক লোকমান হাকীম। সম্প্রতি পুস্পিতা উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ন হয়েছেন। এখন ঢাকা সিটি কলেজে পড়াশোনা করছেন। পুস্পিতার ইচ্ছে পড়াশোনা আর গান দুটিই একসঙ্গে চালিয়ে যাবেন। তিনি মনে করেন ভালো কিছু গান করতে পারলে সারা জীবন মানুষের মাঝে বেঁচে থাকা সম্ভব।