Home বইমেলা প্রতিদিন এবারের বইমেলা হবে ইতিহাসের সেরা বইমেলা

এবারের বইমেলা হবে ইতিহাসের সেরা বইমেলা

SHARE

হাবীবুল্লাহ সিরাজী, মহাপরিচালক বাংলা একাডেমি

এবারের বইমেলা অন্যান্য বছরের চাইতে বেশ আলাদা ও গুরুত্বপূর্ণও বটে। প্রাণেরমেলা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করা হয়েছে। মেলায় আসছে বঙ্গন্ধুর নিজের লেখা বই ‘আমার দেখা নয়া চীন’। বইমেলার নানান দিক নিয়ে একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী কথা বলেছেন আনন্দ আলো বইমেলা প্রতিদিনের সঙ্গে-
বইমেলা প্রতিদিন: এ বছর মেলার ভিন্ন আয়োজনগুলো নিয়ে বলবেন-
হাবীবুল্লাহ সিরাজী: প্রতিবারের নিয়মিত বিভিন্ন দিক ছাড়া এবার মেলায় অনেক নতুন বিষয় যুক্ত হয়েছে। এবার দ্বিতীয়বারের মতো ডিজিটাল পদ্ধতিতে মেলার আবেদনপত্র বিতরণ-গ্রহণ এবং অনলাইনে ভাড়ার অর্থ পরিশোধের ব্যবস্থা করা হয়। এবার একটি নতুন থিম নির্ধারণ করা হয়েছে। আর তা হলো বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ। মেলা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করা হয়েছে। স্থপতি এনামুল করিম নির্ঝর বঙ্গবন্ধুকে কেন্দ্র করে মেলার আঙ্গিক ও সামগ্রিক পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছেন। বঙ্গবন্ধুকে কেন্দ্র করে অনেক স্থাপনা করা হয়েছে। মেলার বিভিন্ন অংশ বঙ্গবন্ধুকে এমনভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে যাতে তাঁর জীবনের একটি পূর্ণাঙ্গ চিত্র ফুটে ওঠে। এবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মেলা প্রাঙ্গণটি ‘শিকড়’, ‘সংগ্রাম’, ‘মুক্তি’ ও ‘অর্জন’ এ চারটি নামে নামকরণ করা হয়েছে, যা বঙ্গবন্ধুর জীবন এবং কর্মের সাথে জড়িত। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এবারের বইমেলা হবে ইতিহাসের সেরা বইমেলা। মেলার উভয় অংশে তিনটি তথ্যকেন্দ্র রয়েছে। দুটি সোহরাওয়ার্দীতে ও একটি একাডেমি প্রাঙ্গণে। ‘লেখক বলছি’ মঞ্চ এবার বর্ধিত পরিসরে স্থাপন করা হয়েছে। শিশু চত্বর বিশেষভাবে সাজানো হয়েছে। শিশুপ্রহরের দিনগুলোতে ‘তারুণ্যের বই’ ব্যানারে শিশু-কিশোরদের বইপাঠে উৎসাহিত করা হবে। প্রতি বছরের মতো এবারও হুইল-চেয়ার সেবা রয়েছে। এবার হুইল চেয়ারের সংখ্যা বাড়ানোও হয়েছে।
বইমেলা প্রতিদিন: এবার কোন ধরনের বই বেশি মেলায় আসবে বলে আপনি মনে করেন?
হাবীবুল্লাহ সিরাজী: প্রতিবছর বিভিন্ন ধরনের বই আসা আর এবারের আসার মধ্যে তফাত আছে। যেহেতু আগামী ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত মুজিব বর্ষ পালিত হবে রাষ্ট্রীয়ভাবে, দেশে এ নিয়ে বিদেশে। সেই প্রেক্ষিতে এবার বইমেলায় প্রচুর বই আসবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপরে। এবং বাংলা একাডেমির একটা নিজস্ব কার্যক্রম আছে। বাংলা একাডেমি মুজিব বর্ষকে সামনে রেখে একটি গ্রন্থমালা সিরিজ করেছে। মুজিবশতবর্ষ গ্রন্থমালা সিরিজ। তারও ২৬ খানা বই এই বই মেলায় আসবে। এই সিরিজের প্রথম বই ‘আমার দেখা নয়া চীন’- এটি রচনা করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বয়ং। এই বইটির প্রকাশনা উৎসব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হয়ে থাকবে। যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন।
বইমেলা প্রতিদিন: এবার পাইরেডেট বই সহ ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়া বইয়ের দিকে কেমন নজর রাখা হবে?
হাবীবুল্লাহ সিরাজী: এই বিষয়ে আমাদের একটা তদারকি কমিটি আছে। প্রতিবছরই এই কমিটি থেকে এই বিষয়ে নানান কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়। পাইরেটেড বই, নকল বই, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিতে পারে এ ধরণের বই যাতে বই মেলায় প্রদর্শিত বা বিক্রি না হয় সেদিকে নজর থাকবে।
বইমেলা প্রতিদিন: মেলার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বলবেন-
হাবীবুল্লাহ সিরাজী: গতবারের চেয়ে এবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। কারন মেলার পরিধি বেড়েছে। মেলার প্রবেশ ও বাহিরপথে পর্যাপ্ত সংখ্যক আর্চওয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মেলার সার্বিক নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবি ও গোয়েন্দা সংস্থাসমূহের নিরাপত্তাকর্মীবৃন্দ। নিñিদ্র নিরাপত্তার জন্য মেলায় এলাকাজুড়ে ৩ শতাধিক ক্লোজসার্কিট ক্যামেরার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সমগ্র মেলাপ্রাঙ্গণ ও দোয়েল চত্বর থেকে টিএসসি হয়ে শাহবাগ, মৎস্য ভবন, ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট হয়ে শাহবাগ পর্যন্ত এবং দোয়েল চত্বর থেকে শহিদ মিনার হয়ে টিএসসি, দোয়েল চত্বর থেকে চাঁনখারপুল, টিএসসি থেকে নীলক্ষেত পর্যন্ত নিরাপত্তার স্বার্থে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।
বইমেলা প্রতিদিন: যেহেতু সিটি নির্বাচনের জন্য মেলা একদিন পরে শুরু হয়েছে। তাই মেলার কী সময় বাড়ানো হবে?
হাবীবুল্লাহ সিরাজী: না। এটার কোনো সুযোগ নেই। এবারের বইমেলা একদিন পেছালেও আগামী ৩ মার্চ থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রস্তুতি অনুষ্ঠান আছে। তাই এবারের বইমেলা ২৯ ফেব্রুয়ারির মধ্যেই শেষ করতে হবে, সময় বাড়ানোর কোনো সুযোগ নেই।