Home প্রতিবেদন এনগেজমেন্ট

এনগেজমেন্ট

SHARE

বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার প্রথম ধাপ হচ্ছে এনগেজমেন্ট কিংবা পানচিনি।  তাই এই অনুষ্ঠানে বর আর কনের সাজটা হওয়া চাই বেশ রুচিশীল।  কনে এই দিনে হালকা গর্জিয়াস শাড়ি পরলে ভালো দেখাবে।  সাথে হালকা গহনা থাকতে পারে।  আগে পানচিনি বা এনগেজমেন্ট ঘরোয়াভাবে হলেও এখন বেশ ঘটা করে হয়।  শাড়ির ম্যাটেরিয়াল হতে পারে মসলিন, শিফন, সফট সিল্ক, ক্রেপ জর্জেট।  রঙ হতে পারে নীল, গোলাপি, পিচ, লাইট পার্পল ইত্যাদি।  মেকআপের ক্ষেত্রে স্নিগ্ধ ভাব বজায় রাখুন।  আর চুল কোনোভাবেই গর্জিয়াস করা যাবে না।  এতে হীতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।  চোখের সাজেও সিম্পল ভাব বজায় রাখুন।  এ দিনে 794A7225ছেলে ফরমাল গেটাপে থাকবে।  তবে শীতের প্রাদুর্ভাব থাকায় ক্যাজুয়াল স্যুট পরা যেতে পারে।  কেউ চাইলে পাঞ্জাবিও পরতে পারেন।  এতে ট্রেডিশনাল ভাবটা বজায় থাকে।  এনগেজমেন্টের রিং নিয়েও অনেক সময় দ্বিধাদ্বন্দ্বে পরেন অনেকেই।  এজন্য রিং কেনার সময় সিম্পল রিং নিতে পারেন।  স্বর্ণের বদলে আজকাল ডায়মন্ডের রিংও পছন্দ করেন কেউ কেউ।  তাই আগে থেকেই চিন্তা করে রাখুন রিংটা কেমন কিনবেন।  বেশি ভারি রিং অনেকে পছন্দ করেন না।  তাই ছেলে কিংবা মেয়ে দু’জনের ক্ষেত্রেই রিং কেনার সময় এই বিষয়টা মাথায় রাখা উচিত।  এনগেজমেন্টের শাড়ির ক্ষেত্রে মসলিন, জামদানি, নেট বা জর্জেটের শাড়িতে বৈচিত্র্য এসেছে।  দেশিয় ফ্যাশন হাউজগুলোতেও গর্জিয়াস শাড়ি পাওয়া যায়।  যা এনগেজমেন্টের জন্য বেশ মানাবে।

পোশাক: শাড়ি: জীনাত, পাঞ্জাবি: বালুচর, স্যুট-শার্ট: ইনফিনিটি। 

মডেল: হিমি, অনিক অভি, সুকর্ন হাসান, ওয়াসেক, কেয়া, সুভা, বীর ও নারগিস।