SHARE

গোলাম মাওলা রনি, রাজনীতিবিদ ও কলামিস্ট

সহজ কথা যায় না বলা সহজে। আবার কম সময়েও প্রয়োজনীয় কথা বলা সহজ হয় না। এসো আড্ডা দেই, পাঁচ মিনিট… এ ধরনের কথা শুনলে প্রথমেই অনেকে না-না করে উঠবেন। বলবেন, আরে ভাই মাত্র পাঁচ মিনিটের আড্ডায় কি বলব? শুরু করতে করতেই তো শেষ হয়ে যাবে। এতো গেল ব্যক্তিগত পর্যায়ের আড্ডা। কিন্তু আড্ডাটা যদি হয় কোনো টেলিভিশন অনুষ্ঠানের জন্য। সময় মাত্র পাঁচ মিনিট অর্থাৎ ৩০০ সেকেন্ড। উপস্থাপক প্রশ্ন করবেন। অতিথি উত্তর দিবেন। বাস্তবেও তাই হয়েছে। চ্যানেল আইতে শাহরিয়ার নাজিম জয়-এর উপস্থাপনায় ৩০০ সেকেন্ড নামের একটি ব্যতিক্রমধর্মী অনুষ্ঠান বেশ জমে উঠেছে। এই অনুষ্ঠানেরই বাছাই করা ১০০জন বিশিষ্ট ব্যক্তির ৩০০ সেকেন্ড অর্থাৎ  পাঁচ মিনিটের সাক্ষাৎকার নিয়ে আনন্দ আলোর ঈদ সংখ্যার একটি বিশেষ আয়োজন এখন বাজারে। আজ থেকে অনলাইনে শুরু হলো এই সংখ্যার অন্তর্ভুক্ত একশজন বিশিষ্ট ব্যক্তির সাক্ষাৎকার…

জয়: বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থা নিয়ে আপনি কী খুশি?
রনি: জী আমি খুশি
জয়: আপনি তো একটি ভিন্ন রাজনীতিতে বিশ্বাস করেন তাহলে কীভাবে খুশি?
রনি: আমরা এখন হতাশার চুড়ান্ত পর্যায়ে কাজেই আশা করতে পারছি এই সময়টা শেষ হয়ে একটি খুশির খবর আসতে যাচ্ছে বা ভালো কিছু হতে যাচ্ছে।
জয়: লোকে বলে আপনি আওয়ামী লীগ ছেড়ে বিএনপিতে যাওয়ায় আফসোস করেন?
রনি: না আমাকে যদি আপনার বুদ্ধিমান মনে হয় আর তারপর যদি আপনি আমার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করতে চান তাহলে আপনাকে আমার চেয়ে বুদ্ধিমান হতে হবে।
জয়: আপনি কী আওয়ামী লীগে আবার ফেরত আসতে চান?
রনি: না আমি ফেরত যাওয়ার কোনো কারণ দেখছিনা।
জয়: আপনি এখন কোন ধরনের বিপদে আছেন?
রনি: আমি কোন ধরনের বিপদে নাই। আমি আগে সরকারি দলে যখন ছিলাম তখনো ভালো ছিলাম এবং আমি এখন যেখানে আছি আরো ভালো আছি। আমি কখনোই কোনো বিপদে ছিলাম না কোনো দলে।
জয়: বিএনপির তিনটি গুনের কথা যদি বলতেন
রনি: বিএনপিতে মাল্টি কালচারের মানুষ কাজ করে এবং এখানে সেজন্য শেখার অনেক কিছু আছে। এটি অনেক উদার মনের দল। এখানে কনজার্ভেটিভনেস নাই এবং আদর্শ জাতীয় রাজনৈতিক দল হওয়ার জন্য যেসব গুণাবলি প্রয়োজন তার সবই আমি দেখি বিএনপিতে।
জয়: এখন যে দলে আছেন সে দল ক্ষমতায় আসতে কত বছর লাগতে পারে, কী মনে হয়?
রনি: আমি ক্ষমতার জন্য কখনো রাজনীতি করি নাই ক্ষমতার প্রয়োজন হলে সরকারি দলের সাথেই থাকতাম সে দল ছেড়ে আসতাম না। আমার রাজনীতি করতে ভালো লাগে এবং রাজনীতি করার যেখানে স্বাধীনতা এবং পরিবেশ পাবো সেখানেই করবো।
জয়: আওয়ামী লীগের তিনটি ভালো গুন কী আপনার মতে?
রনি: আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক শক্তি অনান্যদলের চেয়ে অনেক বেশি এবং তারা সবাই একি ধরনের মন মানসিকতার। একটা নির্দিষ্ট প্যাটার্ণ ফলো করে যার ফলে তাদের নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ কম অনান্য দলের চেয়ে।
জয়: আপনি প্রতিদিনই রোযা রাখেন এটি কী সত্যি?
রনি: জী এটা একটি ব্যক্তিগত বিষয় এবং এটার কারণ এখন ছোট করে বুঝানো সম্ভব না। বিভিন্ন কারনেই রাখি রোযা এবং আগে প্রতিদিনই রাখতাম এখন একদিন বাদ দিয়ে দিয়ে রাখি।
জয়: আপনি কী এখনো পড়াশোনা করছেন?
রনি: জী আমি সময় পেলেই আমার পছন্দের বিষয় নিয়ে পড়ি।
জয়: আপনাকে যদি এই মুহুর্তে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় তাহলে কী পরিবর্তন আনতে চান?
রনি: এই বিষয়টা চিন্তা করাও একটি অবান্তর ও অবাস্তব বিষয়। দেশ পরিচালনা করা একটি কঠিন কাজ এবং আমি একজন বাস্তববাদী ব্যক্তি সুতরাং এসব কাল্পনিক জিনিস নিয়ে আমি ভেবে দেখিনি কখনো।
জয়: সাম্প্রতিক কালে দেশে যে দূর্নীতি অভিযান চলছে এ বিষয়ে আপনার এবং আপনার দলের কী বলার আছে?
রনি: খুবই ভালো সিদ্ধান্ত এবং আমি এই অভিযানকে সাদরে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। আমার দলের বিষয়টা আমি জানিনা। আমি তাদের হয়ে কথা বলতে চাইনা যেহেতু আমি একজন বড় পদের কেউনা। সুতরাং দেশের একজন নাগরিক হিসেবে আমি প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তকে গ্রহণ করেছি।
জয়: রাজনীতিতে কাকে অনুকরণ করেন?
রনি: বাংলাদেশের সোহরাওয়ার্দী সাহেবকে অনুকরণ করি আর আন্তর্জাতিক ভাবে রোনাল্ড রিগ্যান কে।
প্রচার: ২৪ অক্টোবর ২০২০