SHARE

মা হওয়ার কারণে প্রায় দশ মাস ধরে কোনো কাজ করেননি মৌসুমী নাগ। তবে তার অভিনীত কিছু ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। অন্যদিকে তার অভিনীত ‘রান আউট’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। কথা হলো তার সঙ্গে-

আনন্দ আলো: অনেকদিন কাজ না করেও পর্দায় আপনার উপস্থিতি ঠিকই আছে-

মৌসুমী নাগ: মা হওয়ার কারণে প্রায় দশ মাস ধরে কোনো কাজ করছি না। এর আগে দলছুট প্রজাপতি, শূন্য জীবন, ভিলেজ ইঞ্জিনিয়ার, সম্পর্ক ধারাবাহিকে কাজ করেছিলাম। এর মধ্যে শূন্য জীবন ও দলছুট প্রজাপতি নাটক দুটি প্রচার হচ্ছে। এজন্য ছোটপর্দায় আমার উপস্থিতি রয়েছে। কিছু দিন পর আবারও নতুনভাবে কাজ শুরু করব।

আনন্দ আলো: ‘রানআউট’ ছবিটি নিয়ে বলবেন

মৌসুমী নাগ: থ্রিলার গল্প নিয়ে সিনেমাটি নির্মিত হয়েছে। এখানে আমাকে ভিন্নভাবে দেখা যাচ্ছে। এর আগে আমাকে এমনভাবে কখনও দেখা যায়নি। আমার বিশ্বাস ‘রানআউট’ শুধু আমার নয় দর্শকদেরও প্রত্যাশা পূরণ করবে। আমি সিনেমাটি নিয়ে অনেক বেশি আশাবাদী। শতভাগ বাণিজ্যিক ধারার চলচ্চিত্র এটি । ৭০টি হলে মুক্তি পায়। পরবর্তী সপ্তাহে ৩০টি হলে দেখা যাবে। তন্ময় তানসেনের পরিচালনায় এখানে আমি, সজল, তারিক আনাম খান, স্বর্ণাসহ আরও অনেকেই অভিনয় করেছি।

আনন্দ আলো: আপনার অভিনীত ‘শূন্য জীবন’ নাটক সম্পর্কে বলুন-

মৌসুমী নাগ: এই নাটকে আমি একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। আমার বিপরীতে কাজ করেছেন হিল্লোল ভাই। তিনি আমার বয়ফ্রেন্ড। মিডিয়ায় কাজের প্রতি হিল্লোল ভাইয়ের ঝোঁক থাকে।

আনন্দ আলো: ঈদে আপনার অভিনীত ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ‘প্রার্থনা’ ছবিটি মুক্তি পায়। এ ব্যাপারে কিছু বলুন

মৌসুমী নাগ: হ্যাঁ। ‘প্রার্থনা’ সম্পূর্ণ বাণিজ্যিক ধারার চলচ্চিত্র নয়। তবে এটি এক শ্রেণীর দর্শকের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। যারা ছবিটি দেখেছে আমাকে ইতিবাচক কথাই বলেছে।

আনন্দ আলো: নতুন কোনো চলচ্চিত্রে কাজ করবেন?

মৌসুমী নাগ: আমি অভিনেত্রী, নায়িকা নই। তাই মনের মতো কোনো গল্প পেলে যেখানে অভিনয়ের সুযোগ থাকবে এমন ধরনের চলচ্চিত্রে কাজ করব। তবে বড়পর্দার পাশাপাশি ছোটপর্দায়ও নিয়মিত কাজ করবো।

চয়নিকার দুই নাটক

choyonika-natokদুই নাটকের শুটিং নিয়ে ফরিদপুরে ব্যস্ত রয়েছেন নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী ও তার ইউনিট। ফরিদপুরে জমিদার বাড়ি, শরৎ সাহার বাড়ি ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের বাগানবাড়িতে নাটকগুলোর দৃশ্যধারণ হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছেন শর্মিলী আহমেদ, জাকিয়া বারী মম, শাহেদ শরীফ খান, কল্যাণ কোরাইয়া, নাজিরা মৌ প্রমুখ। চয়নিকা চৌধুরী জানান, দু’টি নাটকের শুটিংয়ের পরিকল্পনা নিয়ে ফরিদপুরে যাই। এখানে ‘সুন্দর জীবন’ ও ‘নীল নীলিমায়’ নামের দুটি নাটকের শুটিং করেছি। এর মধ্যে ‘সুন্দর জীবন’ নাটকটি পূজা উপলক্ষে নির্মাণ করেছি। চয়নিকা চৌধুরীর গল্প ভাবনা থেকে ‘সুন্দর জীবন’ নাটকটি লিখেছেন ফারিয়া হোসেন। এতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ে দেখা যাবে শর্মিলী আহমেদ, শাহেদ শরীফ খান ও নাজিরা মৌকে। এছাড়াও জিনাত হাকিমের লেখা ‘নীল নীলিমায়’ নামের আরও একটি নাটকের দৃশ্যধারণ করেছেন ফরিদপুরে। চয়নিকা চৌধুরী বলেন, ‘খুবই চমৎকার একটা স্ক্রিপ্ট। নাটকটি সবার ভালো লাগবে। এতে অভিনয় করেছেন- জাকিয়া বারী মম, কল্যাণ, নাজিরা মৌ, শফিউল আজম পিন্টু।

এই কূলে আমি আর ওই কূলে তুমি

sikandar-boxনতুন একটি ধারাবাহিক নাটকের কাজ শুরু করলেন নির্মাতা সাগর জাহান। ধারাবাহিকটির নাম ‘এই কূলে আমি আর ওই কুলে তুমি’। এরই মধ্যে উত্তরার একটি বাড়িতে এ ধারাবাহিকটির শুটিং শুরু হয়েছে। নতুন এই ধারাবাহিক নাটকে মোশাররফ করিম এবং শখ ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন তানিয়া আহমেদ, ফারুক আহমেদ, বাঁধন, ইন্তেখাব দিনার, সাব্বির আহমেদ, রহমত আলী এবং মামুনুর রশীদ। নাটকের কাহিনী প্রসঙ্গে পরিচালক বলেছেন, ‘পুরোপুরি একটি পারিবারিক গল্পের ওপরেই নির্মিত হতে যাচ্ছে এই ধারাবাহিকটি। তবে, এ নাটকে মোশাররফ করিমের চরিত্র বরাবরের মতোই একটু অন্যরকম। তিনি এলাকার ‘ভাই’। কিন্তু বেশ ক্ষমতাবান। চাইলে যা খুশি তাই করতে পারেন। তাঁকে শুধু একজনই বশে আনতে পারেন। তিনি বর্ণনা। এই চরিত্রটি করেছেন অভিনেত্রী শখ।’