Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড আমার জীবনে অপ্রাপ্তির চেয়ে প্রাপ্তিই বেশি

আমার জীবনে অপ্রাপ্তির চেয়ে প্রাপ্তিই বেশি

SHARE

বড় ও ছোট পর্দার অভিনেতা জাহিদ হাসান। হুমায়ূন আহমেদের একাধিক নাটকে কাজ করে তিনি কোটি দর্শকের হৃদয়ে জায়গা করে নেন। দেশীয় চলচ্চিত্রের পাশাপাশি কাজ করেছেন কলকাতার ছবিতেও। ১৯ জুলাই কলকাতার ‘সিতারা’ ছবিটি পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের পাঁচটি রাজ্যে একযোগে মুক্তি পাবে। অভিনয় ও সমসাময়িক নানা প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-
আনন্দ আলো: এখনকার ব্যস্ততা কি নিয়ে?
জাহিদ হাসান: নিজের প্রোডাকশন হাউস থেকে কোরবানি ঈদের জন্য একাধিক চ্যানেলে খন্ড নাটক ও ৭ পর্বের নাটক নির্মাণ করছি। ইতোমধ্যে অনেক নাটকের কাজ শেষ করেছি। পাশাপাশি অন্যের পরিচালনায় কাজ করছি। সব মিলিয়ে খুব ব্যস্ত সময় পার করছি।
আনন্দ আলো: সিতারা ছবিটি নিয়ে বলবেন-
জাহিদ হাসান: ১৯ জুলাই পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের পাঁচটি রাজ্যে একযোগে মুক্তি পায় আশীষ রায়ের ছবি ‘সিতারা’। এই ছবিতে আমার বিপরীতে আছেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাইমা সেন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার পরিচালক নিজেই তার ফেসবুকে পোস্ট করলেন সিতারার নতুন পোস্টার। পশ্চিমবঙ্গ, কেরালা, তামিলনাড়ু, কর্ণাটক ও অন্ধ্রপ্রদেশে মুক্তি পায় ‘সিতারা’। পাঁচ রাজ্যে ছবিটি মুক্তি পেলেও এটি বাংলা, তেলেগু ও তামিল ভাষায় নির্মিত হয়েছে। এই ছবিতে দেখানো হয়েছে কাঁটাতার পেরিয়ে বেআইনিভাবে ভারতে পা রাখে সিতারা। সঙ্গে ছিল স্বামী জীবন শেখ। স্বামী-দেওর মিলেই পশ্চিমবঙ্গে তাকে বেচে দেয়া হয়। তারপর বেঁচে থাকার এক নতুন সংগ্রাম- লালসার ফাঁদ থেকে পালানোর চেষ্টা।
আনন্দ আলো: আপনার দীর্ঘ অভিনয় জীবনে প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি নিয়ে বলবেন-
জাহিদ হাসান: দীর্ঘ অভিনয় জীবনে অনেক মানুষের সঙ্গে চলতে শিখেছি। একজন মানুষের জনপ্রিয়তা মানুষকে কোথায় নিয়ে যেতে পারে তা আসলে এই অঙ্গনে না এলে বোঝা যেত না। আমার জীবনে অপ্রাপ্তির চেয়ে প্রাপ্তিই বেশি। তবে অপ্রাপ্তি হিসেবে হুমায়ূন আহমেদ স্যারের সঙ্গে আরও অনেক কাজ করার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু তাঁর অকাল মৃত্যুতে তা আর হলো না। আমরা তাকে অনেক মিস করি। তিনি যেন ওপারে ভালো থাকেন।