Home আরোও বিভাগ সিনেমা স্টার সিনেপ্লেক্স-এর ১৪ বছর জমজমাট তারকা মেলা

স্টার সিনেপ্লেক্স-এর ১৪ বছর জমজমাট তারকা মেলা

SHARE
Cineplex

আমার দিকে সবাই তাকিয়ে আছে। ওপারের হিরো এপারে কি করে সেটাই যেন দেখতে চায় তারা। কঠিন এক পরীক্ষা। টিকতে না পারলে দেশের মান সম্মান যাবে। ঠিক ওই সময় আমার ভিতরে একটা জেদ কাজ করেছে। আমি ফেল করলে আমার ইন্ডাস্ট্রি ফেল করবে। ভেবেছিলাম আমি যদি সেরাটা না দিতে পারি তবে লজ্জায় পড়বে আমার নিজের ইন্ডাস্ট্রি। কাজেই জিততেই হবে আমাকে। এতো বছরের ক্যারিয়ারে যতটুকু শিখেছি সেটাকেই পুঁজি করে অভিনয়, লুক, ফিটনেস সহ অন্যান্য বিষয়ের ওপর জোর দিয়ে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি আমার ইন্ডাস্ট্রির মান মর্যাদা রক্ষা করার জন্য।
কথাগুলো বলেছেন বাংলা চলচ্চিত্রের সুপারস্টার শাকিব খান। এসময় তার আশে পাশে ভীড় করে দাঁড়িয়েছিলেন আমাদের চলচ্চিত্রাঙ্গণের জনপ্রিয় অভিনেতা, অভিনেত্রী সহ এক ঝাক গুণী মানুষ। এক সময়ের তুমুল জনপ্রিয় চিত্র নায়ক ফারুক, এসময়ের ব্যস্ত তারকা রিয়াজ, ফেরদৌস, ওমর সানী, জয়া আহসান, পুর্ণিমা, আরিফিন শুভ, পপি, শহীদুজ্জামান সেলিম, চঞ্চল চৌধুরী সহ আরও অনেক তারকারা হাস্যোজ্জ্বল উপস্থিতিতে মঞ্চে দাঁড়িয়ে শাকিব খান যখন তার অভিনয় জীবন ও ওপারের সিনেমায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের সত্য ভাষণ শোনাচ্ছিলেন তখন দর্শক সারীতে ছিল পিন পতন নীরবতা। নায়কের মুখে নায়কের মতোই প্রেরণাদায়ী বক্তব্য শুনে অভিভ‚ত সবাই। আর তাই স্টার সিনেপ্লেক্স এর ১৪ তম বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানটি হয়ে ওঠে অনেক আনন্দের, অনেক ভালোবাসার। বিশেষ করে অনেকদিন পর একই মঞ্চে আমাদের বাংলা সিনেমার ৪ জনপ্রিয় তারকা ওমর সানী, ফেরদৌস, রিয়াজ ও শাকিব খানকে পাওয়া গেল। এক সাথে একই মঞ্চে দাঁড়িয়ে তারা আমাদের চলচ্চিত্রাঙ্গণ সম্পর্কে গুরুত্বপুর্ণ বক্তব্য রেখেছেন। বলেছেন চলচ্চিত্র নিয়ে আগমীর অনেক স্বপ্নের কথাও।
উৎসব মুখর এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। অনুষ্ঠানে স্টার সিনেপ্লেক্স এর ১৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্টার সিনেপ্লেক্স-এ প্রদর্শিত দেশের ব্যবসা সফল ১৪টি চলচ্চিত্র যথাক্রমে মোল্লাবাড়ির বউ, দারুচিনি দ্বীপ, মনপুরা, থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার, গেরিলা, চোরাবালি, প্রজাপতি, জিরো ডিগ্রী, ঢাকা অ্যাটাক, হৃদয়ের কথা, চন্দ্রগ্রহণ, শিকারি, আয়নাবাজি ও ভ‚বনমাঝি’কে পুরস্কৃত করা হয়। অতিথিদের সাথে নিয়ে পুরস্কার প্রদান করেন স্টার সিনেপ্লেক্স এর চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা, নির্মাতা ও উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয়।
আগামীতে সিনেমাও বানাবে স্টার সিনেপ্লেক্স
আগামীতে সিনেমা বানানোর ঘোষনা দিয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্স। ১৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আনন্দ অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান বলেছেন, যতই দিন যাচ্ছে দেশে ততই সিনেমা হলের সংকট বাড়ছে। সিনেমা ব্যবসা সফল না হওয়ায় হল মালিকরা হল বন্ধ করে দিচ্ছেন। বানিজ্যিক ঘরানার সিনেমা গুলোও মুখ থুবরে পড়ছে এখন। সিনেমা ব্যবসার এই সুন্দার দিনে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের সিনেমার বাজারেও সিনেপ্লেক্স গুলোই ভরসার জায়গা হয়ে উঠেছে। আমরা বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে নিয়েছি। আমরা আগামীতে সিনেমাও বানাব। পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন এলাকায় সিনেপ্লেক্স নির্মাণ করব। মাহবুব রহমান বলেন, সীমান্ত সম্ভার ধানমন্ডিতে তিনটি মাল্টিপ্লেক্স করা হয়েছে। অচিরেই আনুষ্ঠানিক ভাবে এর উদ্বোধন করা হবে। এছাড়া মহাখালী, উত্তরা ও পুর্বাচলেও পৃথক ভাবে সিনেপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এতদিন থ্রিডি এক্স টেকনোলজি দেখেছেন দর্শক। নুতন মাল্টিপ্লেক্স গুলোতে কোরিয়ার অত্যাধুনিক ফোরডি এক্স দেখার সুযোগ থাকবে।