Home টি-২০ আড্ডা ভাইরে আমি খুবই ইমোশনাল! -উর্মিলা

ভাইরে আমি খুবই ইমোশনাল! -উর্মিলা

SHARE
Urmila

মোহাম্মদ তারেক
আনন্দ আলো: আপনি এক সময় গান গাইতেন। গানের দিকে ক্যারিয়ার না গড়ে অভিনয়ে এলেন কেন?
উর্মিলা: বাবা-মার খুব ইচ্ছা ছিল আমি যেন অভিনয়ে আসি। অভিনয়ের প্রতি দুর্বলতা ছিল বলেই অভিনয়ে আসা।
আনন্দ আলো: জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় যে কাজটি…
উর্মিলা: ২০১০ সালে লাক্স চ্যানেল আই সুপার স্টার প্রতিযোগিতাটি আমার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় বলতে পারেন।
আনন্দ আলো: প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে মনে মনে কী বলেন?
উর্মিলা: মনে মনে বলি দিনটা যেন আমার ভালো যায়। যানজটে যেন না পড়ি।
আনন্দ আলো: ক্যামেরার সামনে প্রথম দিন…
উর্মিলা: ছোটবেলায় বিটিভিতে দুর্গাপুজার জন্য একটা নাটক করেছিলাম। সেখানে আমি ‘দূর্গা’ চরিত্রে অভিনয় করি।
আনন্দ আলো: আপনার অভিনীত প্রথম নাটক…
উর্মিলা: আমার অভিনীত প্রথম নাটক ‘জটিল প্রেম’। এটি পরিচালনা করেছিলেন তাহের শিপন। আমার বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন চঞ্চল চৌধুরী। প্রথম নাটকে অভিনয়ের সময় খুব ভয় পেয়েছিলাম। তবে তাহের শিপন ভাই ও চঞ্চল ভাই আমাকে প্রচুর সহযোগিতা করেছিলেন এজন্য নাটকে আমার চরিত্রটি সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তুলতে পেরেছিলাম। প্রথম নাটকে অভিনয়ের জন্য আমি ১০,০০০ টাকা পারিশ্রমিক পেয়েছিলাম।
Urmila-t20আনন্দ আলো: আপনাকে একদিনের জন্য মঙ্গলগ্রহে পাঠানো হলে কাকে সঙ্গে নিতে চাইবেন?
উর্মিলা: মঙ্গলগ্রহে যাওয়ার সময় মোবাইল সঙ্গে নিয়ে যাব কারণ সেলফি তোলাটা মিস করা যাবে না।
আনন্দ আলো: ফেসবুকের ইনবক্সে কী ধরনের প্রস্তাব বেশি পান?
উর্মিলা: খাওয়া দাওয়ার প্রস্তাব খুব একটা বেশি পাই না। তবে প্রেম-বিয়ের প্রস্তাব অনেক বেশি পাই।
আনন্দ আলো: যে চরিত্রের ভিতরে ঢুকে পড়েছিলাম…
উর্মিলা: আলী ফীদা আকরাম তোজোর পরিচালনায় ‘কালো আর ধুলো বাহিরে কেবল’ নাটকটির ‘পুষ্প’ চরিত্রের ভেতরে যেন সত্যি সত্যিই ঢুকে পড়েছিলাম।
আনন্দ আলো: অভিনয় ছাড়া আর যা ভালো করতে পারেন?
উর্মিলা: গান ভালো গাইতে পারি। মানুষকে ভালোবাসতে পারি।
আনন্দ আলো: যে নাটক দেখে প্রচÐ হেঁসেছেন…
উর্মিলা: অনেক নাটক দেখে আমি হেসেছি। তবে হুমায়ূন স্যারের নাটক গুলো দেখে প্রচÐ হেসেছি।
আনন্দ আলো: যাকে অথবা যাদের দেখে এখনো অভিনয় শিখি…
উর্মিলা: সুর্বনা মুস্তাফা, বিপাশা হায়াত, তারিন আপুদের অভিনয় দেখে এখনো অভিনয় শিখি।
আনন্দ আলো: জীবনের যে সময়টা ফ্রেমে বন্দী করে রাখার মতো…
উর্মিলা: আমার বাবার সাথে প্রতিটা মুহূর্তের সময়টা ফ্রেমে বন্দী রাখার মতো।
আনন্দ আলো: এখনো যার প্রেমে মশগুল…
উর্মিলা: রবীন্দ্রনাথের প্রেমে আমি এখনো মশগুল।
আনন্দ আলো: মিডিয়ার যে ব্যাপারটা ভালো লাগেনা?
উর্মিলা: মিডিয়ায় কেউ কখনো কারোর বন্ধু হয় না। এখানে প্রকৃত বন্ধুত্ব বলে কিছু নেই। এটাই ভালো লাগে না।
আনন্দ আলো: খুব রেগে যান যখন…
উর্মিলা: কেউ বিশ্বাস নষ্ট করলে, বা মিথ্যা কথা বললে।
আনন্দ আলো: যে প্রশ্ন শুনতে শুনতে ক্লান্ত…
উর্মিলা: আপনি গান করেন না কেন।
আনন্দ আলো: সারা রাত গল্প করার মতো বন্ধু…
উর্মিলাী: সারারাত গল্প করার মতো বন্ধু ছিলেন আমার বাবা। এখন উনি নেই। না ফেরার দেশে চলে গেছেন। আই মিস উই বাবা।
আনন্দ আলো: যে পোশাকে আমাকে সবচেয়ে বেশি মানায়?
উর্মিলা: সেলোয়ার কামিজ পড়তে ভালো লাগে। তবে শাড়িতে আমাকে সবচেয়ে বেশি মানায়।
আনন্দ আলো: পৃথিবী থেকে ব্যাংক উঠে গেলে নিজের টাকা গুলো কোথায় রাখবেন?
উর্মিলা: ব্যাংক উঠে গেলে কী আর করা। টাকা গুলো গরীব মানুষের মাঝে বিলিয়ে দেব।
আনন্দ আলো: উর্মিলার সবচেয়ে বাজে অভ্যাস…
উর্মিলা: আমি খুবই ইমোশনাল। এটা আমার সবচেয়ে বাজে একটা অভ্যাস।