Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড ফেসবুক নিয়ে বিড়ম্বনায় তারকারা

ফেসবুক নিয়ে বিড়ম্বনায় তারকারা

SHARE

বর্তমান সময়ে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক। সামাজিক যোগাযোগের এ মাধ্যমে দ্রুত বহুসংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়। কিন্তু কিছু কিছু কারণে ফেসবুক নিয়ে বিপাকে রয়েছেন এ সময়ের জনপ্রিয় সব তারকারা। কতিপয় প্রতারক ছবিসহ জনপ্রিয় তারকাদের নামে ভুয়া আইডি খুলছে। অতঃপর তারকাদের জীবনযাত্রা নিয়ে নানা রকম কুৎসা রটাচ্ছে। এতে ওই তারকাসহ ভক্তরাও বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছেন। ভক্তরা তাদের প্রিয় তারকার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ফেইক আইডিতে ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট পাঠাচ্ছেন। এভাবে বন্ধুসংখ্যা বেড়ে গেলে প্রতারক অপারেটর তারকাদের জীবনযাত্রা নিয়ে নানা রকম কুৎসা রটনা শুরু করেন। এতে ওই তারকাসহ ভক্তরাও বিব্রতকর পরিস্থিতে পড়ছেন।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চিত্রনায়িকা ফরিদা আক্তার ববিতার নামে অনেক ভুয়া আইডি রয়েছে। এসব আইডি থেকে রাজনৈতিকসহ নানা ধরনের বিতর্কিত পোস্ট প্রকাশ করা হচ্ছে। এ নিয়ে ববিতাকে বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হচ্ছে। ববিতা বলেন, ‘আমার কোনো ফেসবুক আইডি-ই নেই। তাছাড়া এর প্রতি আমার কোনো আসক্তিও নেই। কিন্তু তারপরও কিছু প্রতারকের কারণে এ নিয়ে আমাকে বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হচ্ছে। বিভিন্নজনের কাছে শুনেছি, তারা রাজনৈতিকসহ বিতর্কিত পোস্ট ও অশ্লীল ছবি প্রকাশ করছে। পাশাপাশি আমার ভক্ত-শুভাকাক্ষীদের কাছে বিভিন্ন সমস্যা দেখিয়ে টাকাও চাইছে। এটিও এক ধরনের প্রতারণা। এই কাজটি যারা করছেন, আমি তাদের উদ্দেশে বলছি, দয়া করে আপনারা ভুয়া আইডিগুলো বন্ধ করুন। আমার ভক্ত ও শুভাকাঙক্ষীদেরও এ আইডিগুলো অনুসরণ না করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। তাছাড়া এ বিষয়ে আমি সবার সহযোগিতা কামনা করছি।’

সম্প্রতি চিত্রনায়িকা রোজিনার নামেও কয়েকটি অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমার মাত্র একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে। তাতে বন্ধুসংখ্যা মাত্র ৫০ জন। তাদের প্রত্যেককেই আমি চিনি। এর বাইরে কারো সঙ্গে আমার চ্যাট বা কথা হয় না। অথচ কে বা কারা আমার নামে অ্যাকাউন্ট খুলে মিডিয়া সংশ্লিষ্ট থেকে শুরু করে অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। নানা ফায়দা নেয়ারও চেষ্টা করছেন। এর একটা বিহিত হওয়া দরকার। আমি এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

জানা গেছে, মাহিয়া মাহি, পরীমনি, শখ, বিদ্যা সিনহা মিম, পড়শী, আঁখি আলমগীর, শাকিব খান, আসিফ আকবর, বাপ্পী চৌধুরী, মৌ, সুজানা জাফর, সজল, তানজিকাসহ প্রায় ৩০ জন আলোচিত তারকার প্রত্যেকের ২০-২৫টি করে ফেইক আইডি রয়েছে। প্রতিটি আইডিতেই লেটেস্ট ছবিগুলো আপলোড করা হচ্ছে। অধিকাংশ আইডিতে ফেসবুক ফ্রেন্ড-এর সংখ্যা চার হাজার থেকে পাঁচ হাজারের মধ্যে রয়েছে। এ প্রসঙ্গে পরীমনি বলেন, ‘ভুয়া আইডি নিয়ে অনেক যন্ত্রণার মধ্যে আছি। প্রতারকরা প্রতিনিয়ত আমার নামে নতুন নতুন আইডি খুলছে। এসব আইডির মধ্যে আমার পুরো নামসহ আরো রয়েছে, মিষ্টি মেয়ে পরী, রূপালী পরী, পরীকন্যা ইত্যাদি। সবগুলো আইডিতে আমার নতুন নতুন ছবি আপলোড করা হচ্ছে। তাই এটা যে ফেইক আইডি, তা ভক্তদের বোঝার কোনো উপায় থাকছে না। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি।’

মাহি জানান, তার নামে অসংখ্য ভুয়া আইডি রয়েছে। এসব আইডি থেকে তাকে নিয়ে নানা ধরনের অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। তাই তিনি এগুলো বন্ধ করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

আঁখি আলমগীর বলেন, ‘শুধু ভুয়া আইডি নিয়ে নয়, আমার নিজের আইডি নিয়েও বিপাকে রয়েছি। ফেসবুকে আমার বন্ধুর সংখ্যা খুব বেশি নয়। পরিচিতজনদেরই কেবল বন্ধুর তালিকায় রেখেছি। তবে ইদানীং অপরিচিত ব্যক্তিরাও ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট পাঠাচ্ছেন। যদিও তাদের আমি বন্ধুর তালিকায় ঠাঁই দিচ্ছি না। তারপরও বিষয়টি আমার কাছে বিরক্তিকর হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া কিছু কিছু ব্যক্তি ইনবক্সে অশালীন ছবি পাঠান কিংবা স্ট্যাটাসের নীচে বিতর্কিত সব কমেন্টস করে থাকেন। এ নিয়ে আমি খুবই বিপাকে পড়েছি। আসলে আমাদের মানসিকতার উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত এ থেকে উত্তোরণের পথ নেই।’  নবাগত তারকারাও এ যন্ত্রণা থেকে রেহাই পাচ্ছেন না। লাক্স তারকাখ্যাতি অর্জনের মাস তিনেকের মধ্যেই নাদিয়া আফরিনের নামে অনেক ফেইক আইডি খোলা হয়েছে। এসব আইডিতে তাকে নিয়ে নানা রকম কুরুচিকর মন্তব্য করা হচ্ছে।