Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড এরপর থেকে আর পেছনে ফিরতে হয়নি

এরপর থেকে আর পেছনে ফিরতে হয়নি

SHARE
Nafiza-jahan

লাক্স তারকা নাফিজা জাহান। ২০১৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে অভিনয় ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। সেখানে স্বামী-সংসার নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। স¤প্রতি দেশে ফিরেছেন এই তারকা। অভিনয় করেছেন নতুন কিছু নাটকে। সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে কথা হয় তার সঙ্গে
আনন্দ আলো: দেশে কতোদিন থাকবেন?
নাফিজা: দুই মাস থাকবো। পাঁচ বছর পর গত ১৬ আগস্ট ঢাকায় আসি। এরপর থেকেই ঘুরে বেড়াচ্ছি। দীঘির্দনের বন্ধু, সহকর্মীদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে দারুণ সময় কাটছে। পরিবারের সবার সঙ্গে আগামী দু’মাস সময় কাটাব। এরমধ্যে ভালো লাগার মতো গল্প ও চরিত্র পেলে নাটক-টেলিছবিতে অভিনয় করছি।
আনন্দ আলো: কাজ করেছেন কোনো নাটকে?
নাফিজা: দীঘর্ পাঁচ বছর পর সম্প্রতি ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছি। ‘শেষ দেখার পরে’ শিরোনামের একটি নাটকে অভিনয় করেছি। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন প্রিয় অভিনেতা মীর সাব্বির ভাই। আগে যখন কাজ করতাম তখন চিত্রনাট্য হাতে পেলে একবার দেখলেই বুঝে যেতাম আমার কাজ বা চরিত্র কেমন। নিজেকে কীভাবে উপস্থাপন করতে হবে। কিন্তু এবার সত্যিই শুটিংয়ের আগে কিছুটা ভয় কাজ করেছে। চেষ্টা করেছি আগের মতো সাবলীল অভিনয় করার।
আনন্দ আলো: প্রবাস জীবন কেমন কাটে?
নাফিজা: প্রবাসে স্বামী-সংসার নিয়ে বেশ ভালোই আছি। বসে থাকতে থাকতে একটু মুটিয়ে গিয়েছি। তবে প্রবাসে থাকলেও অভিনয়কে খুব মিস করি। এটা আমার ভালোলাগার জায়গা। তাই অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মিডিয়ার অনেকের সঙ্গেই আমার নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে।
আনন্দ আলো: মিডিয়ায় প্রবেশের দিনগুলোর কথা মনে আছে?
নাফিজা: হ্যাঁ। ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মিডিয়ায় আমার পথচলা শুরু। ক্যারিয়ারের একেবারে শুরুর দিকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘৪২০’ নাটকে বিজলী চরিত্রে দশর্ক আমাকে দারুণভাবে গ্রহণ করে। এরপর থেকে আর পেছন ফিরতে হয়নি আমাকে। মডেলিং ও অভিনয় নিয়েই ব্যস্ত ছিলাম। তবে বৈবাহিক সূত্রে ২০১৩ সালের মাঝামাঝিতে ভালোলাগার জায়গা অভিনয় ছেড়ে হঠাৎ করেই আমাকে আমেরিকা চলে যেতে হয়।