Home এক্সক্লুসিভ ঈদের যত কেনাকাটা

ঈদের যত কেনাকাটা

SHARE
car-2

ঈদ উৎসবে আমেজে মেতেছে সারাদেশ। শেষ সময়ের কেনাকাটায় ব্যস্ত সবাই। ঈদেও কেনাকাটায় নানা রকমের ভাগও রয়েছে। ঈদে শুধু ফ্যাশনের জন্য পোশাক কিংবা ফ্যাশন অনুষঙ্গই নয়, আরো অনেক কেনাকাটাই থাকে। পোশাক আশাকের পাশাপাশি ঘর সাজানোর অনুষঙ্গ যেমনি কিনতে হয়ে তেমনি লাইফস্টাইলের জন্যও থাকে আরো অনেক কেনাকাটা। যেমন আজকাল ঈদের সময় নতুন পোশাক-জুতার পাশাপাশি নামিদামি ব্র্যান্ডের সোফা সেট, টেলিভিশন, ফ্রিজ, মোবাইল ফোন, জুয়েলারিসহ শখের ব্র্যান্ডের গাড়িটিও কিনে থাকেন কেউ কেউ।
ঈদ অফারে কিনে নিন নতুন গাড়ি
অনেকদিন ধরেই পুরনো গাড়িটা বদলে নতুন গাড়ি কিনবেন ভাবছেন। তাহলে এই ঈদেই তো কিনতে পারেন। কারণ ঈদের সময় এমনিতেই নানা ধরনের ফেস্টিভ অফার চলে। তাই গাড়ি কেনাকাটার ক্ষেত্রে কিছু সুযোগ সুবিধা মিলতে পারে। তবে গাড়ি কিনবেন বললেন, আর কিনে নিয়ে চলে এলেন সেটা তো হয় না। গাড়ি কেনা অনেকেরই সখ হতে পারে, কিন্তু তা প্রয়োজনেরও। তাই গাড়ি কেনার আগে প্রথমে একটু চিন্তা ভাবনা করুন। সবার আগে নিজের প্রয়োজনের কথা ভাবুন। গাড়ি কেনার আগে অটোমোবাইল ম্যাগাজিনগুলো একটু উলটে পালটে দেখতে পারেন। কোন গাড়ির কত মাইলেজ, কোন গাড়ি পার্ক করতে বেশি সুবিধা ইত্যাদি বিষয় জেনে নিলে প্রয়োজন অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হবে। ডিজেল চালিত গাড়ি না পেট্রোল চালিত গাড়ি কিনতে চান সেটাও ভেবে নিন। গাড়ির মডেল বাছার সময় বাজেটের বিষয়টাও মাথায় রাখতে হবে। আর সবকিছু জেনে, বুঝে গাড়ি কিনতে গেলে, আপনি আপনার প্রয়োজনীয়তা ও আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বোঝাতে পারবেন। ঈদ উপলক্ষে অনেক গাড়ি কোম্পানিই বিশেষ ছাড় দিয়ে থাকেন। খবর নিয়ে সেসব গাড়ির শোরুমে যেতে পারেন। আবার অনেক কোম্পানিও ঈদ উপলক্ষে গাড়ির বিশেষ অফার দিয়েছেন। অটোমোবাইলের সাইটগুলোতে খবর নিয়ে যেতে পারেন এবার ঈদে গাড়ি কিনতেও।
পোশাক ফ্যাশন
Eid-Shoppingঈদে ফ্যাশনেবল পোশাক সবাই কিনতে চায়। এজন্য ব্র্যান্ডের দোকানগুলোতে সবসময় ভিড় লেগেই থাকে। ঈদে ছেলেদের বেলায় পাঞ্জাবিটাই বেশি কেনা হয়। এজন্য আপনি চলে যেতে পারেন ব্র্যান্ডের সব পাঞ্জাবির দোকানে। রেমন্ড, মান্যবর, লারিভ, লুবনান, রিচম্যান, ইয়ালো, আড়ং, মেনস ওয়ার্ল্ড, মেঘ, নিখুঁত বাংলাদেশ, ইনফিনিটি, রঙ বাংলাদেশ, অঞ্জন’স, এমব্রেলা, কে ক্রাফট, বাংলারমেলা, সেইলর, ওটুসহ এসব ব্র্যান্ডের দোকানে পাবেন নতুন সব ডিজাইনের পাঞ্জাবি। আর মেয়েরা তাদের পছন্দের সব পোশাকও পাবেন এসব দোকানগুলোতে। এছাড়াও যারা আরেকটু কম দামের পোশাক কিনতে চান তারা যেতে পারেন নগরীর আজিজ সুপার মার্কেট, নিউ মার্কেট, গাউছিয়া, মৌচাক মার্কেটে ঢুঁ মারতে পারেন। আর নগরীর বসুন্ধরা শপিং মল, যমুনা ফিউচার পার্ক, রাফা প্লাজা, মেট্টো শপিং মল, ইস্টার্ন প্লাজাসহ বিভিন্ন শপিং মার্কেটে পাবেন ঈদের পছন্দ সব জামা কাপড়।
ঈদে চাই নতুন জুতা
ঈদে যতই দামি জামা-কাপড় কেনা হোক না কেন- জুতা না হলে যেন ফ্যাশনটা ঠিকঠাক জমে ওঠে না। তাই তো ঈদে বাহারি ডিজাইনের সব জুতা কেনার জন্য যেতে হবে ব্র্যান্ডের সব দোকানে। ঈদে এবার পাঁচ শরও বেশি কালেকশন নিয়ে হাজির হয়েছে এপেক্স। মেয়েদের জন্য রয়েছে ওয়েজ হিলের নিনো রসি। আছে ব্যালেরিনার কালেকশন। ফ্যাশনে নতুন মাত্রা দিতে আছে সান্দ্রা রোসার ভিন্ন ধাঁচের গø্যাডিয়েটর স্যান্ডেল। এ ছাড়া আছে পিপ টো ফ্ল্যাট স্যান্ডেল। শিশুদের জন্য এপেক্সে আছে টুইংকলারের নানা রং ও ডিজাইনের স্যান্ডেল, স্পোর্টস সু, পাম্প, লোফার।
এবার ঈদে বাটা জুতা কিনলে বাংলালিংকের গ্রাহকরা ১০ শতাংশ ছাড় পাবেন। সব বিকাশ গ্রাহক বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট করলে পাবেন ১০ শতাংশ ক্যাশব্যাক অফার। রকেটে পাবেন ২০ শতাংশ ক্যাশব্যাক অফার। ঈদে ক্রিসেন্টে ৫০০টি নতুন ডিজাইনের জুতা বাজারে আসছে। পিওর লেদার ছাড়াও আড়ংয়ে আছে আর্টিফিশিয়াল লেদারের জুতা। আছে ¯িøপার ও মেয়েদের জন্য সেমিহিল স্যান্ডেল। বিকাশের মাধ্যমে কেনাকাটা করলে ২০ শতাংশ ক্যাশব্যাক অফার পাওয়া যাবে আড়ংয়ে।
ঈদে চাই ফার্নিচার
Eid-Shopping-3ঈদে পোশাকের পাশাপাশি অনেকেই ঘরের জন্য নতুন সব ডিজাইনের ফার্নিচার কিনে থাকেন। তাই ঈদ উপলক্ষে ফার্নিচারের শোরুমগুলোতেও পাওয়া যাচ্ছে নানান ডিজাইনের সব ফার্নিচার। ঈদে হাতিলের বিশেষ অফার সব ফার্নিচারে ৫ থেকে ১০ শতাংশ ছাড়। হাতিলের যেকোনো শোরুমে এই অফার পাওয়া যাবে। ঈদে সোফা, খাট, ডাইনিং টেবিলের নকশায় পাবেন নতুনত্ব। ব্রাদার্স ফার্নিচারে রমজানের অফার ‘কিস্তিতে ঘর সাজবে সবার’। ৫ থেকে ১৫ শতাংশ ছাড়ে এবং ১২ মাসের কিস্তিতে কিনতে পারবেন আপনার পছন্দের ফার্নিচার। ঈদ উপলক্ষে রিগালে এসেছে নতুন স্টিলের আলমারি। পারটেক্স ফার্নিচার ঈদ উপলক্ষে এনেছে হোম ডেকোরেশন পণ্য। প্রতিটি পণ্যে আছে ১০ থেকে ১২ শতাংশ মূল্যছাড়। এ ছাড়া আছে স্ক্র্যাচ কার্ড ঘষলেই নগদ মূল্যছাড়। আলমারি থেকে শুরু করে খাট, ড্রেসিং টেবিলে আছে ১০০০ টাকা পর্যন্ত ছাড়। এমনিভাবে ফার্নিচারে নানান অফার দিয়েছে নাভানা, অটবি, নাদিয়াসহ ছোট-বড় প্রায় সবগুলো ফার্নিচার ব্র্যান্ড।
ক্রেডিট কার্ডে ঈদ!
ঈদ ও রোজায় বাড়তি কেনাকাটা থাকেই। কেনাকাটায় স্বাচ্ছন্দ্য দিতে বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে থাকে বিশেষ ছাড়। ঈদের কেনাকাটা সহজ করতে এক্সিম ব্যাংকের রয়েছে বিভিন্ন রকমের কার্ড। গ্রাহকের জন্য তারা এনেছে এক্সিম ট্রাভেল কার্ড, গিফট কার্ড, ক্যাশ কার্ড, রেমিট্যান্স কার্ড ও হজ কার্ড। ঈদের উপহার হিসেবে দিতে পারেন প্রিয়জনের নাম, ছবিসহ এক্সিমের গিফট কার্ড। প্রাইম ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে আছে নানা ছাড়। লং বিচ, সি-গাল, অ্যাম্বাসাডরসহ ২৮টি হোটেলে থাকছে ১০ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। এ ছাড়া এমব্রোসিয়া, রয়েল কুজিন রেস্টুরেন্ট, বস সুইটস অ্যান্ড ফুডসহ সাতটি রেস্টুরেন্টে রয়েছে ৭ থেকে ২০ শতাংশ ছাড়। জারা, এসএ ওয়ার্ল্ড, সেলাইঘরসহ আটটি ফ্যাশন হাউসে থাকছে ১০ থেকে ২০ শতাংশ ছাড়। পূবালী ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে ছাড় থাকছে পিকাসো, ডাইন ইন ধাবা, স্টিক এন সুচি, স্কাই ডেক রেস্টুরেন্ট, ফিস্ট রেস্টুরেন্ট, ব্র্যাক সেন্টার ইন, আর্টিজান, প্লাটিনাম সুইটস, গ্র্যান্ড ও রেসিডেন্স রেস্টুরেন্টে। পাওয়া যাবে ১০ থেকে ৫০ শতাংশ ছাড়। এসএ ওয়ার্ল্ড, নগরদোলা, র‌্যাংগস ইলেকট্রনিকস, জারাস ফ্যাশন, ট্রান্সকম, লেজার ট্রিট, ডি ডামাসসহ ২৫টি আউটলেটে থাকবে ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। ব্যাংক এশিয়া ক্রেডিট কার্ডে গ্রাহকদের দিচ্ছে বিশেষ ছাড়। ঈদ ও রোজায় তাঁরা পাচ্ছেন ৭ শতাংশ ছাড়। ছাড় থাকবে র‌্যাংগস, তোশিবা ও ট্রান্সকমের সব ইলেকট্রনিক পণ্যে। এনআরবি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে লং বিচ, লেক শোর হোটেলে থাকছে একটিতে দুটি ফ্রি অফার। লা মেরিডিয়ান, ওয়েস্টিন, ঢাকা রিজেন্সি, আমারি ঢাকা হোটেলে থাকছে একটিতে একটি ফ্রি অফার। জুয়েলারি ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, আমিন, অঞ্জলি, গীতাঞ্জলি, ডি ডামাসসহ বিভিন্ন জুয়েলারি ব্র্যান্ডে ডায়মন্ড ও গোল্ড মেকিং চার্জের ওপর ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় থাকছে।
গহনার বাজার
ঈদের সময় অনেকেই গহনা কিনে থাকেন। তাই তো ঈদে গহনার দোকানগুলোতেও থাকে নানান ধরনের অফার ও নতুন ডিজাইনের গহনা। ঈদ উপলক্ষে রমজান মাসজুড়ে ভেনাস জুয়েলার্স সোনার গয়নায় মজুরিতে ৩১ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে। এ ছাড়া হীরার গয়নায়ও থাকছে ৩১ শতাংশ ছাড়। রমজানের শুরু থেকে চাঁদরাত পর্যন্ত থাকবে এই ছাড়। গ্রামীণ জুয়েলার্সেও সোনার গয়নায় থাকছে ঈদ ছাড়। সব ধরনের সোনার গয়নার মজুরিতে ২০ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাবে। গীতাঞ্জলি জুয়েলার্সে রমজান মাসজুড়ে বিভিন্ন ডিজাইনের ডায়মন্ড জুয়েলারিতে ৩৫ শতাংশ ছাড় চলবে। সোনার গয়নার মজুরিতে এই ছাড় পাবেন ক্রেতারা। এমনিভাবে আরো রয়েছে ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, আমিন জুয়েলার্স, আল হাজেন ডায়মন্ড গ্যালারিসহ বিভিন্ন স্বর্ণের দোকানে নানান ধরনের অফার।
ইলেকট্রনিক পণ্য
electronicঈদ উপলক্ষে ইলেকট্রনিক পণ্যে চলছে ছাড়। রোজার শুরু থেকেই সব ব্র্যান্ডে ছাড়ের অফার দিচ্ছে কোম্পানিগুলো। ঈদ উপলক্ষে সনি র‌্যাংগস এর পণ্য কিনলে পাচ্ছেন সৌজন্য ছাড়। টিভি কিনলে ওয়াল হ্যাংগার, ফ্রিজের সঙ্গে স্ট্যান্ড, দেয়ালঘড়ি ইত্যাদি থাকছে। কিস্তিতেও ফ্রিজ, এসি কিংবা টিভি কেনা যাবে। প্রতিবারের মতো এই ঈদেও ওয়ালটন ইলেকট্রনিকসে থাকছে দারুণ সব অফার। প্রতিটি পণ্যের দাম কমেছে। এসি, ফ্রিজ, এয়ারকুলার, টিভিতে আছে ৮ থেকে ১০ শতাংশ ছাড়। ছয় মাসের মধ্যে কিস্তি পরিশোধ করতে হবে, তবে এর চেয়ে বেশি সময় নিলে পণ্যের ওপর নির্ভর করে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত অতিরিক্ত টাকা দিতে হতে পারে।
ইলেকট্রা ইন্টারন্যাশনালে ফ্রিজ, এলইডি কিনলে পাবেন স্ক্র্যাচ কার্ড। কার্ডের মধ্যে উপহারগুলো হচ্ছে নগদ মূল্যছাড়, মোবাইল ফোন এবং মালয়েশিয়া ভ্রমণ। টিভি, এসি ও ওয়াশিং মেশিনের সঙ্গে ইনস্টলেশন ফ্রি। সিঙ্গার প্লাসের ২০টি মডেলের এসিতে এসেছে ৮০০০ থেকে ১০০০০ টাকা পর্যন্ত ছাড়। ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভিতে আছে ১৫০০০ টাকা ছাড়। বিভিন্ন সাইজের টিভিতে ১৫০০ থেকে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত ছাড়। ভিশনের সব পণ্যে রয়েছে ১০ থেকে ১৫ শতাংশ ছাড়। ফ্রিজ, এসি ও টিভির সঙ্গে থাকছে মোবাইল ফোন, দেয়ালঘড়িসহ সব আকর্ষণীয় উপহার। বেস্ট ইলেকট্রনিকসে টিভি, এসি, ওয়াশিং মেশিন, ফিল্টারসহ সব পণ্যে আছে ১০ শতাংশ ছাড়। স্ক্র্যাচ কার্ডেও ছাড়ের অফার চলছে। ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত ছাড় দেয়া হচ্ছে।
উপহার কিনতে হলে
ঈদে সালামি প্রচলন থাকলেও উপহারের সমাদর অন্য রকম। প্রিয়জনকে ঈদ উপলক্ষে পছন্দের উপহার দিয়ে চমকে দিতে পারেন। তাই ঈদ উপলক্ষে প্রিয়জনকে এমনকিছু উপহার দিতে পারেন যাতে সে চমকে যায়। শুধু সময় দেখায় সীমাবদ্ধ নেই ঘড়ির ব্যবহার, এটি এখন ফ্যাশন অনুষঙ্গ। ছোট-বড় কিংবা নারী-পুরুষ সবার কাছেই ঘড়ির বেশ সমাদর রয়েছে। তাই এই ঘড়িও কাউকে উপহার দিতে পারেন। দিতে পারেন কাউকে গিফট ভাউচারও। আজকাল ফ্যাশন হাউস, রেস্তোরাঁ, হোটেল, ট্যুর অপারেটর কোম্পানির রয়েছে নানা রকমের গিফট ভাউচারের ব্যবস্থা। আপনার বাজেটের সঙ্গে মানানসই গিফট ভাউচারের চেক কিনে দিতে পারেন কাউকে। এমনিভাবে আরো দিতে পারেন বই, হেডফোনসহ মোবাইলের কাভারও। যা বেশ সময় উপযোগী ও প্রয়োজনীয়ও।
রান্নাঘরের কেনাকাটা
রান্নাঘরে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় স্টিং। স্টিংয়েই রাখা হয় থালাবাসন ও অন্যান্য জিনিস। সে জন্য ঈদে অনেকেই রান্নাঘরের স্টিং পরিবর্তন করে থাকেন। আরএফএলের স্টিংয়ের দাম পড়বে ১৯৯০ থেকে ৫৯৯৯ টাকা পর্যন্ত। বাজারে আছে নানা রকম সিংক। মদিনার কিচেন সিংকের দাম শুরু ১৪০০ টাকা থেকে ২৪০০ টাকা পর্যন্ত। বাজারে রয়েছে নানা ব্র্যান্ডের দেশি-বিদেশি বিভিন্ন রকম গ্যাসের চুলা। সাধারণত লোহা, স্টিল ও গøাস- এই তিন ধরনের চুলা পাওয়া যায়। এসব চুলার মধ্যেও আছে ব্র্যান্ড ও ননব্র্যান্ড। বর্তমানে অটোমেটিক চুলার কদর একটু বেশি। এগুলোর দাম পড়বে ১২০০ থেকে ৬৫০০ টাকার মধ্যে।
কৃতজ্ঞতা: এসকে অটোমোবাইলস