Home আরোও বিভাগ ইভেন্ট ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-দ্বিতীয় বর্ষ সবার সেরা দেবস্মিতা সাহা

ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-দ্বিতীয় বর্ষ সবার সেরা দেবস্মিতা সাহা

SHARE
Ispahani-banglabid

ঘড়িরকাটা তখন সন্ধ্যে ৬টা। অনুষ্ঠান শুরু হবে ৭.৩০ মিনিটে। দেড় ঘণ্টা আগেই রংপুর থেকে ঢাকায় আসেন মোজ্জামেল হোসেন। পেশায় তিনি একজন শিক্ষক। প্রিয় ছাত্রীকে সমর্থন দিতে তিনি উপস্থিত হয়ে যান বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে। প্রসঙ্গ তুলতেই ওই শিক্ষক জানান, ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ দ্বিতীয় বর্ষ প্রতিযোগিতাটির প্রতিটি পর্ব তিনি চ্যানেল আই-এর পর্দায় দেখেছেন। স্কুলের ছেলে মেয়েদের ব্যাকরণ জ্ঞান ও সাহিত্যের ওপর দক্ষতা দেখে অবাক হয়েছেন।
৫ অক্টোবর ২০১৮। নগরীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয় ইস্পাহানি মির্জাপুর চ্যানেল আই বাংলাবিদ সিজন-২ এর মহোৎসব। ‘বাংলায় জাগো ভরপুর’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ইস্পাহানি মির্জাপুর ও চ্যানেল আই আয়োজন করেছিল বাংলা ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ, বানান ও ব্যাকরণের সঠিক ব্যবহার ছড়িয়ে দিতে বাংলা ভাষা বিষয়ক মেধাভিত্তিক টিভি রিয়েলিটি শো ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ ২০১৮’। আবারও এমন একটি আয়োজনের অপেক্ষায় ছিল সারা বাংলাদেশ। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রায় ৫৩ হাজার প্রতিযোগী এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। সেখান থেকে প্রতিযোগিতার নানান ধাপ পেরিয়ে সেরা ছয়জনকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই মহোৎসব আয়োজন।
ঘড়ির কাটা তখন ঠিক সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিট। অনুষ্ঠানের পরিচালক ঘোষনা দিলেন আর মাত্র এক মিনিট বাকি। এক মিনিট পর আমরা লাইভে যাব। চ্যানেল আইতে শুরু হলো সরাসরি অনুষ্ঠান। মঞ্চে এলো একদল নৃত্যশিল্পী। ওয়ার্দা রিহাব এর কোরিওগ্রাফিতে ‘বাংলা ভাষার’ গানটি মনো মুগ্ধকর পারফরমেন্স উপস্থিত সকলের নজর কাড়ে। নৃত্যটি শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মঞ্চে আসেন উপস্থাপক খায়রুল বাশার। একে একে প্রতিযোগিতার প্রধান বিচারক ড. সৌমিত্র শেখর, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক ও অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদারকে মঞ্চে ডাকা হয়। সংক্ষিপ্ত অনুভ‚তি প্রকাশের পর বিচারকের আসন গ্রহণ করেন তারা। এরপর পরই মঞ্চে ডাকা হয় ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ দ্বিতীয় বর্ষের সেরা ছয় প্রতিযোগীকে। কারিন আশরাফ ঈন (ঢাকা), আফিয়া ইবনাত শুচি (রংপুর), সাদিয়া আফরোজ অন্তু (রংপুর), এহসানুল কাদির শান্ত (খুলনা), ধ্রæব মন্ডল (বরিশাল) ও দেবস্মিতা সাহা (চট্টগ্রাম) চ‚ড়ান্ত ৬ প্রতিযোগী মহোৎসবের বিভিন্ন পর্বে অংশ নেয়। তার আগে বক্তব্য রাখেন চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর ও ইস্পাহানি টি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক, বিপণন ওমর হান্নান।
জমকালো যত আয়োজন
ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ এর মহোৎসবে একের পর এক পারফরমেন্স উপস্থিত দর্শক সহ চ্যানেল আইতে প্রচার হওয়া ছয়টি মহাদেশের দর্শকরা বেশ উপভোগ করেন। অনুষ্ঠানে কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লার দেশাত্মবোধক গান ‘প্রতিদিন তোমায় দেখি সূর্যের আগে, ও আমার দেশ-ও আমার বাংলাদেশ’-এর পরিবেশনা ছিল সত্যিই অতুলনীয়। গানটির সঙ্গেও ছিল মনোমুগ্ধকর নৃত্য। যা পরিবেশন করেন চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ের শিল্পীরা। অনুষ্ঠানে চ্যানেল আই-এর সেরা নাচিয়ে নৃত্য-শিল্পীদের অংশ গ্রহণে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘আজ সৃষ্টি সুখের উল্লাসে’ কবিতার আবৃত্তি করেন আবৃত্তি শিল্পী মাহিদুল ইসলাম এবং বাংলাবিদের সেরা ১০ জন প্রতিযোগী। কবিতা আবৃত্তির সঙ্গে নৃত্য পরিবেশনাও ছিল চমৎকার। সবশেষে বাংলাবিদ অনুষ্ঠানের থিম সং নিয়ে মঞ্চে আসে একদল নৃত্য শিল্পী। ইভান শাহরিয়ার সোহাগের কোরিওগ্রাফিতে ‘বাংলা আমার এক ঠিকানা বাংলা আমার শেষ/এই বাংলা তোমার আমার এই বাংলাই বাংলাদেশ’Ñশিরোনামের গানটিতে মনোমুগ্ধকর পারফরমেন্স উপস্থিত সকলের নজর কাড়ে।
একদিকে পারফরমেন্স অন্যদিকে প্রতিযোগিতা
Banglabidইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ এর অনুষ্ঠানটি অন্যান্য প্রতিযোগিতা থেকে একেবারেই আলাদা ছিল। নাচ গানে ভরপুর না হলেও একটা শৈল্পিক মাধুর্যতা পুরো আয়োজনেই ছিল। পুরো অনুষ্ঠানটি প্রতিযোগীদের মজার মজার শিক্ষনীয় খেলার রাউন্ডের মধ্যে সম্পন্ন হয়। যার ধারাবাহিকতায় ছিল বাংলা ভাষা নিয়ে বিশেষ গেম শো রাউন্ড। গেম শো গুলোর মধ্যে ছিলÑ অমার পছন্দ, গানে গানে খেলা, হিজিবিজি, প্রতিদিনের ভুলগুলি, আমার কথা বুঝতে পারা। যা উপস্থিত দর্শকদের বেশ আনন্দ দিয়েছে।
এলো সেই মাহেন্দ্রক্ষণ
অনুষ্ঠানের একেবারেই শেষভাগ তখন। প্রতিযোগীদের চোখে মুখে তখন চিন্তার বলিরেখা। কে হবে সেরা বাংলাবিদ? দর্শক সারিতে তখন নানান ধরনের গুণগুণ শব্দ। এরই মধ্যে ফলাফল চলে আসে উপস্থাপক খায়রুল বাশারের হাতে। তিনি ঘোষনা করেন বিজয়ীর নাম। প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চট্টগ্রামের মেয়ে দেবস্মিতা সাহা। নাম ঘোষনার সঙ্গে সঙ্গে দেবস্মিতা যেন মুহূর্তেই আনন্দে হারিয়ে যায়। আনন্দে চিৎকার দিয়ে উঠে সে। আর দ্বিতীয় সেরা বাংলাবিদ হয়েছে ঢাকার কারিণ আশরাফ ঈন এবং তৃতীয় সেরা বাংলাবিদ হয়েছে রংপুরের সাদিয়া আফরোজ অন্তু। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়েছেন চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, পরিচালক মুকিত মজুমদার বাবু, এম এম ইস্পাহানি লিমিটেডের পরিচালক জাহিদা ইস্পাহানি এবং মির্জা আহমেদ ইস্পাহানি। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিযোগিতার তিন বিচারক অধ্যাপক ড. সৌমিত শেখর, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক ও অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদার।
যত পুরস্কার
ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ প্রতিযোগিতায় সেরা বাংলাবিদ চট্টগ্রামের মেয়ে দেবস্মিতা পেয়েছে ১০ লাখ টাকার মেধাবৃত্তি। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীকে দেয়া হয়েছে যথাক্রমে ৩ লাখ টাকা ও ২ লাখ টাকার মেধাবৃত্তি। সেরা বাংলাবিদ, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী সহ সেরা ১০ জন পেয়েছে ব্যক্তিগত গ্রন্থাগার সাজানোর জন্য বই, আলমারি ও ল্যাপটপ। ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ সিজন-২’ অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন খায়রুল বাশার এবং পরিচালনা করেছেন তাহের শিপন। অনুষ্ঠানটি ঐদিন সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিট থেকে সরাসরি সম্প্রচার করেছে চ্যানেল আই।