Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড আমি সস্তা জনপ্রিয়তার পক্ষে নই

আমি সস্তা জনপ্রিয়তার পক্ষে নই

SHARE
Toukir

অভিনয়, লেখালেখি, নির্মাণ এ শব্দগুলোর সঙ্গে জড়িয়ে আছেন তৌকীর আহমেদ। টেলিভিশনে অভিনয় করে তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন বলে দেশের বাইরে থেকে পড়াশোনাও করেছেন। তার নির্মিত চলচ্চিত্র আজ শুধু দেশেই নয়, আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলেও প্রশংসিত…
আনন্দ আলো: আপনার পরিচালিত ছবি ‘হালদা’ তিনটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব প্রদর্শিত হয়…
তৌকীর আহমেদ: বাংলাদেশের ছবিকে আমরা বিদেশে পরিচিত করতে চাই। আমাদের ছবি যদি বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় প্রদর্শন করতে পারি, তাহলে এর মাধ্যমে একটি ক্যাম্পেইন হতে পারে। বাংলাদেশের সংস্কৃতির একটি পরিচিতি হতে পারে। সেটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ ধরনের উৎসবে আমাদের ছবি যাওয়া মানে দেশকেই পরিচিত করা।
আনন্দ আলো: ছবিটি নির্মাণে কোনো প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হয়েছিলেন?
তৌকীর আহমেদ: হালদা নদী যে এলাকায়, সেখানে শুটিং করা খুব সহজ ছিল না। অনেক ধরনের রক্ষণশীলতা আছে, অন্য প্রতিবন্ধকতাও ছিল। সেগুলো আমরা অতিক্রম করেই কাজ করেছি। একই সঙ্গে ছিল বাজেট স্বল্পতা। স্বল্প বাজেটে অনেক আয়োজন করা কঠিন হয়ে যায়। যা অতিক্রম করতে কঠিন পরিশ্রম করতে হয়েছে।
আনন্দ আলো: আপনার মুক্তি প্রতিক্ষীত ‘ফাগুন হাওয়া’ ছবিটির খবর কী?
তৌকীর আহমেদ: এরই মধ্যে এ ছবির শুটিংসহ অন্য কাজও শেষ হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এ বছরের ডিসেম্বরে মুক্তির কথা ভেবেছিলাম। পারিপার্শি^ক বিষয়গুলো যদি ঠিক না থাকে তাহলে আগামী বছর ফেব্রæয়ারিতে ছবিটি মুক্তি দেয়ার ইচ্ছা আছে।
আনন্দ আলো: গুণগতমান নাকি জনপ্রিয়তা-কোনটিকে প্রাধান্য দেয়া উচিত?
তৌকীর আহমেদ: আমার ক্ষেত্রে আমি গুণগতমানকেই প্রাধান্য দিতে চাই। কেননা, জনপ্রিয়তা প্রায়শই সস্তা হয়। ভালো জিনিস জনপ্রিয় হলে আমার কোনো সমস্যা নেই। জনপ্রিয়তার জন্য সস্তা জিনিস করার পক্ষপাতী আমি না। গুণগতমান যদি ঠিক থাকে তাহলে সেই বিষয়টা টিকে থাকবে এবং দীর্ঘ সময় ধরে মানুষের মনে থাকবে।
আনন্দ আলো: অভিনয়ে আপনাকে কম দেখা যায়-
তৌকীর আহমেদ: যে ধারার নাটক এখন হচ্ছে, সেখানে কমেডি এবং রোমান্টিক নাটক- এ দুটিই প্রাধান্য পাচ্ছে। সমস্যামূলক কিংবা সমাজ সচেতনতামূলক নাটকের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। সেসব কারণেই হয়তো আমাদেরকে কম ব্যবহার করা হচ্ছে। বর্তমানে আমি একটি গুরুত্বপূর্ণ ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছি। এর নাম ‘বাবা থাকে বাসায়’। এটি শিশুদের জন্য নির্মিত নাটক। আশা করছি দর্শক এ নাটকটি পছন্দ করবেন।
আনন্দ আলো: মঞ্চনাটক নিয়ে সামনে কি পরিকল্পনা আছে?
তৌকীর আহমেদ: হ্যাঁ। একটি গল্প নির্মাণের চেষ্টা করছি। এখনো শেষ হয়নি গল্পটি। গল্প তৈরি হওয়ার পর পরই দর্শক নাটকটি মঞ্চে দেখতে পারবেন।